জটিল সমীকরণ

কারা উঠবে দ্বিতীয় রাউন্ডে?

ফিফা বিশ্বকাপ-২০১৮

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ জুন ২০১৮, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:৫০
এখন চলছে বিশ্বকাপ গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় দফার খেলা। এখনও অনেক রথি-মহারথি দলের নক আউট পর্বে যাওয়া নিশ্চিত হয়নি। ফলে সমর্থকদের মধ্যে উৎকণ্ঠা রয়েই গেছে।
ইতিমধ্যে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়া নিশ্চিত করেছে রাশিয়া, উরুগুয়ে, ফ্রান্স, ক্রোয়েশিয়া। আর প্রথম পর্ব থেকেই বিদায় নিশ্চিত হয়েছে মিশর, মরক্কো, সৌদি আরব, পেরু ও কোস্টারিকার। দেখে নেওয়া যাক কোন দলের কী পরিস্থিতি।
গ্রুপ এ
এই গ্রুপের দুইটি দলের উত্তরণ ও বাকি দুই দলের বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে।
রাশিয়া ও উরুগুয়ে দ্বিতীয় পর্বে, মিশর ও সৌদি আরব বাদ। এখন প্রশ্ন হলো, কে হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। আগামী ম্যাচ হবে রাশিয়া ও উরুগুয়ের। হার এড়াতে পারলেই চ্যাম্পিয়ন রাশিয়া। তবে উরুগুয়েকে জিততেই হবে।
গ্রুপ বি
এই গ্রুপে ইরানের বিপক্ষে আগামী ম্যাচে ড্র করলেই দ্বিতীয় পর্ব নিশ্চিত করবে পর্তুগাল। হারলেও পর্তুগালের যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে, যদি স্পেন আরও বড় ব্যবধানে হারে।
মরক্কোর বিপক্ষে ১ পয়েন্ট তথা ড্র করলেই চলবে স্পেনের। হারলেও হয়তো হবে, যদি পর্তুগাল আরও বড় ব্যবধানে হারে। পর্তুগাল ড্র করলেও, স্পেন ১ গোলের বেশি ব্যবধানে হারলেও সমস্যা হবে না।
ইরান যদি পর্তুগালকে হারায় তবেই দ্বিতীয় পর্বে যেতে পারবে। পর্তুগালকে পরাজয়ের পাশাপাশি, স্পেন যদি নিজের ম্যাচে হেরে যায়, তাহলে ইরান গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন!
পর্তুগাল ও স্পেন - দুই দলই যদি হারে, তাহলে যে দল বেশি ব্যবধানে হারবে, তারা বিদায় নেবে। দুই দলই যদি জিতে, তাহলে যে দল বেশি ব্যবধানে জিতবে তারা হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। দুই দলই ড্র করলে, যে দল বেশি কার্ড পেয়েছে, তারা দ্বিতীয় হবে।
এই গ্রুপের অপর দল মরক্কো বিদায় নিয়েছে।
গ্রুপ সি
এই গ্রুপ থেকে ফ্রান্স ইতিমধ্যেই দ্বিতীয় রাউন্ডে। ডেনমার্কের বিরুদ্ধে আগামী ম্যাচে ড্র করলেই তারা গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন।
পরবর্তী পর্বে যেতে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে ড্র করতে হবে ডেনমার্ককে। তবে জিতে গেলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। হারলেও একটা সম্ভাবনা আছে। সেক্ষেত্রে পেরুকে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অন্তত ড্র করতে হবে, জয় পেলে তো কথাই নেই।
পেরু ইতিমধ্যে বিদায় নিয়েছে।
দ্বিতীয় পর্বে যেতে পেরুর সঙ্গে জিততেই হবে। তবুও নিশ্চিত নয় বিষয়টি। ডেনমার্ককে হারতে হবে এবং গোল ব্যবধানেও এগিয়ে থাকতে হবে।
গ্রপ ডি
ক্রোয়েশিয়া ইতিমধ্যে দ্বিতীয় পর্বে। আইসল্যান্ডের সঙ্গে পরের ম্যাচে ড্র করলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। এমনকি হেরে গেলেও গোল ব্যবধানের দিক থেকে এগিয়ে থাকায় ক্রোয়েশিয়াকে প্রায় চ্যাম্পিয়নই বলা চলে।
আর্জেন্টিনাকে হারালে নাইজেরিয়ার দ্বিতীয় পর্ব নিশ্চিত। ড্র করলেও চলবে, যদি আইসল্যান্ড আবার ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে না বসে।
আর্জেন্টিনার জন্য সমীকরণ আরেকটু কঠিন। নাইজেরিয়াকে হারাতে হবে। এছাড়া আইসল্যান্ড যাতে না জেতে সেই প্রার্থণাও করতে হবে। আইসল্যান্ড জিতে গেলে, আর্জেন্টিনাকে বেশি ব্যবধানে জয় পেতে হবে নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে। কারণ, গোল ব্যবধানের দিক থেকে আইসল্যান্ড এক গোলে এগিয়ে আছে।
আইসল্যান্ডের জন্যও দ্বিতীয় পর্বে যাওয়া কঠিন। ক্রোয়েশিয়াকে হারানোর বিকল্প নেই। পাশাপাশি নাইজেরিয়া যাতে না জেতে সেই কামনা করতে হবে। নাইজেরিয়া ড্র করলে আইসল্যান্ডকে দুই গোলের ব্যবধানে জিততে হবে। আর আর্জেন্টিনা জিতলে (নাইজেরিয়া হারলে), একই ব্যবধানে ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে জিততে হবে।
গ্রুপ ই
সার্বিয়ার সঙ্গে আগামী ম্যাচে না হারলেই ব্রাজিল নিশ্চিত দ্বিতীয় পর্বে। হেরে গেলেও সম্ভাবনা থাকবে, যদি সুইজারল্যান্ডও পরবর্তী ম্যাচে কোস্টারিকার সঙ্গে হেরে যায়। বড় ব্যবধানে হেরে গেলে অবশ্য বিপদ। সেক্ষেত্রে সুইজারল্যান্ডকেও বড় ব্যবধানে হারতে হবে।
ব্রাজিলের সঙ্গে ম্যাচ জিতলে নিশ্চিত দ্বিতীয় রাউন্ড সার্বিয়ার। ড্র করলে আবার প্রার্থণা করতে হবে যাতে সুইজারল্যান্ড বড় ব্যবধানে হারে।
সুইজারল্যান্ডের জন্য সমীকরণ সহজ। ড্র করলেই পরের রাউন্ডে। হেরে গেলেও সুযোগ থাকবে যদি সার্বিয়া হেরে যায়। সার্বিয়া ড্র করলে, আর নিজেরা কোস্টারিকার কাছে ১ গোলে হারলেও চলবে সুইজারল্যান্ডের। সেক্ষেত্রে অবশ্য সার্বিয়া ও সুইজারল্যান্ডের গোল ব্যবধান সমান হবে; তবে সরাসরি ম্যাচে জিতে এগিয়ে আছে সুইজারল্যান্ড।
কোস্টারিকার বিদায় ইতিমধ্যে নিশ্চিত।
আগামী ম্যাচে ব্রাজিল জিতলে, সুইজারল্যান্ড ড্র করলে বা হেরে গেলে, ব্রাজিল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। ব্রাজিল ও সুইজারল্যান্ড দুই দলই জিতলে, গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকা দল চ্যাম্পিয়ন হবে; এক্ষেত্রে সুবিধাজনক অবস্থানে আছে ব্রাজিল। দুই দল ড্র করলে, চ্যাম্পিয়ন হবে ব্রাজিল। ব্রাজিল হারলে বা ড্র করলে সুইজারল্যান্ড জিতলে, সুইজারল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন। ব্রাজিল হারলে, সুইজারল্যান্ড ড্র করলে বা হারলে সার্বিয়া গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন।
গ্রুপ এফ
এই গ্রুপের হিসাবনিকাশ অনেক জটিল।
দক্ষিণ কোরিয়ার ড্র বা পরাজয়ের পাশাপাশি, নিজেদের জয়ই কেবল সুইডেনকে দ্বিতীয় রাউন্ডে তুলতে পারে।
জার্মানি ড্র বা হারলেই মেক্সিকো দ্বিতীয় রাউন্ডে।
সুইডেন ড্র বা জিতলে, আর নিজেরা হেরে গেলে দক্ষিণ কোরিয়া বিদায়। জার্মানি হেরে গেলে, অপরদিকে মেক্সিকো ড্র করলে বা জিতলে, জার্মানি বিদায়।
গ্রুপ জি
এই গ্রুপেরও খেলা বাকি আছে। ফলে স্পষ্ট নয় সবকিছু। আপাতত বলা যায়, বেলজিয়াম জিতলে আর পানামা ড্র বা পরাজয় বরণ করলে, বেলজিয়াম দ্বিতীয় রাউন্ডে।
ইংল্যান্ডও যাবে, যদি তারা জয় পায়, আর তিউনেশিয়া ড্র করে বা হারে।
পানামা বিদায় নেবে, যদি তারা হারে আর বেলজিয়াম ড্র করে বা জিতে।
তিউনেশিয়া বিদায় নেবে যদি তারা হারে, আর ইংল্যান্ড জিতে বা ড্র করে।
গ্রুপ এইচ
এই গ্রুপও অসয়ংসম্পূর্ণ। পোল্যান্ড-কলম্বিয়া ম্যাচ ড্র হলে, আর নিজের খেলায় জিতলেই জাপান দ্বিতীয় রাউন্ডে। সেনেগালেরও একই অবস্থা।
জাপান-সেনেগাল ম্যাচ ড্র হলে, আর নিজের খেলায় হারলে পোল্যান্ড বিদায় নেবে। একই অবস্থা কলম্বিয়ারও।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘নিজেকে আমি বন্দী রাখতে চাই না’

রাজশাহীতে ক্রমশ ঘোলাটে হচ্ছে পরিবেশ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গ্রন্থাগারে হচ্ছে বঙ্গবন্ধু কর্নার

কুষ্টিয়ায় মাহমুদুর রহমানের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

আইএসআই আমাকে প্রধান বিচারপতি বানাতে চেয়েছিল

সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে সরোয়ারের শঙ্কা

ঢাবিতে সমাবেশ ছাত্রলীগের মারধর

আইটিইউ নির্বাচনে জয় চায় বাংলাদেশ

শিল্পনগরীর বেহালদশা, রপ্তানিতে পিছিয়ে পড়ছে চামড়া শিল্প

যুক্তরাষ্ট্রে বেক্সিমকো ফার্মার চতুর্থ ওষুধ রপ্তানি শুরু

জন্মদিনের পার্টির কথা বলে ডেকে তরুণীকে গণধর্ষণ

তিন সিটিতে প্রচারণায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ

মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা ঢাবি শিক্ষকদের

মাহমুদুর রহমানকে নিরাপত্তা দিতে আসেনি পুলিশ: ফখরুল

অ্যানি আলী খানের মরদেহ উদ্ধার