আর্জেন্টাইন সমর্থকরা নিস্তব্ধ

শেষের পাতা

স্পোর্টস রিপোর্টার, নিজনি নভোগরদ (রাশিয়া) থেকে | ২৩ জুন ২০১৮, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৫৫
২০০২ সালের বিশ্বকাপে ঘটেছিলো এমন ঘটনা। তারকায় ঠাসা দল নিয়েও গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছিল আর্জেন্টিনা। রাশিয়া বিশ্বকাপেও কোরিয়া জাপান বিশ্বকাপের পুনরাবৃত্তি ঘটতে যাচ্ছে? মিক্সড জোনে আর্জেন্টিনার ফুটবলারদের চোখে মুখে তেমন শঙ্কাই। সংবাদ সম্মেলনে কোচ হোর্হে সাম্পাওলিতো স্বীকারই করে নিয়েছেন আর্জেন্টিনার সুযোগ ক্ষীণ। আর্জেন্টিনার আমুদে দর্শকরাও দলের ব্যর্থতা মেনে নিয়ে বাকরুদ্ধ। বাদ্যযন্ত্র নিয়ে যারা দিনভর নিজনি নভোগরদকে উৎসবের নগরীতে পরিণত করেছিল, ম্যাচ শেষে তারাই নিঃস্তব্ধ। কোনো কিছুই যেন বলার নেই, করার নেই। শহরটিকেই তাদের কাছে অভিশপ্ত মনে হচ্ছিল।
নিজনি ছাড়তে পারলেই বাঁচেন তারা! তাইতো হোটেলে না উঠে স্টেডিয়াম থেকে সরাসরি চলে এসেছেন নিজনি রেলওয়ে স্টেশনে। কেউবা মস্কোর বাস ধরেছেন।
আর্জেন্টিনার দর্শক মানেই বাড়তি উত্তেজনা। সারা পৃথিবীতেই আর্জেন্টিনার দর্শকদের কদর রয়েছে। যারা যেখানে যান সেখানটাই মাতিয়ে রাখেন। মস্কো থেকে নিজনি আশার পথে তাই করেছেন। বার বার মেসি মেসি বলে চিৎকার করতেও দেখা গেছে তাদের। কিন্তু ম্যাচ শেষে মেসির নামই শুনতে পারছিলেন না। হুইল চেয়ারে ভর দিয়ে আর্জেন্টিনার ম্যাচ দেখতে আসা মার্টিন বলেন, মেসি আর্জেন্টিনার নয়, ও বার্সেলোনার ফুটবলার। ও যতটা ক্লাবের হয়ে খেলে, তার শিকিভাগও আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে খেলে না। ওর ক্লাবে খেলার সঙ্গে জাতীয় দলের খেলা মেলাতে পারবেন না। ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের কান্না যেন থামছিল না। মেসিকে জার্সি দেখে চিনতে হয়েছে বলে কষ্ট লাগছে জানান আরেক দর্শক। অনেকে কোচ হোসে সাম্পাওলির পদত্যাগ দাবি করেছেন। হতশ্রী আর্জেন্টিনার দুরবস্থা আগেই আঁচ করতে পেরেছিলেন ফুটবল গ্রেট দিয়েগো ম্যারাডোনা। তাইতো বিশ্বকাপ শুরুর আগে শঙ্কা জানিয়েছিলেন, এই আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে কোনো ম্যাচ জিতবে না। সেই ম্যারাডোনাও দুটি ম্যাচ গ্যালারিতে বসে দেখেছেন। জায়ান্ট স্ক্রিনে তার অবস্থা দেখে খারাপই লাগছিল। আর্জেন্টিনার প্রতিটি মিস পাসে হাত পা ছুড়ছিলেন এই ফুটবল জাদুকর। যদিও ম্যাচ শেষে ম্যারাডোনার প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। এদিকে বাকরুদ্ধ আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা গতকাল অনুশীলনেই নামেননি। নির্ধারিত অনুশীলন বাতিল করেছেন। আর্জেন্টিনার মিডিয়া ম্যানেজারের সঙ্গে যোগাযোগ করেও দলের পরিকল্পনা জানা যায়নি। ফিফার দেয়া সিডিউল অনুযায়ী সকালে নিজনিতে অনুশীলন শেষে রাতের ফ্লাইটে সেন্ট পিটার্সবার্গ যাওয়ার কথা ছিল আর্জেন্টিনা দলের। সেন্ট পিটার্সবার্গে আগামী ২৬শে জুন আফ্রিকার সুপার ঈগল নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হবে মেসি বাহিনী। হয়তো ওটাই হতে যাচ্ছে বিশ্বকাপে মেসির শেষ ম্যাচ।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন অস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে উ. কোরিয়া

মমতা ব্যানার্জীর ক্ষোভ: পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তন আটকে আছে

গৃহবধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা,স্বামী আটক

যাত্রাবাড়ীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নিহত ১, দগ্ধ ৬

‘তার সঙ্গে খুবই স্বাচ্ছন্দ্যে কাজ করছি’

প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে ইসির অনাপত্তি, মুহিতকে নিষেধ

নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের স্ট্যাটাস কী হবে জানতে চান কূটনীতিকরা

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের উদ্বেগ

টেনশনে প্রার্থীরা

কারাগারে থেকে ভোটের প্রস্তুতি

শহিদুল আলমের জামিন

ধানের শীষে লড়বে ঐক্যফ্রন্ট

নিপুণ রায় চৌধুরী গ্রেপ্তার

আতঙ্ক উপেক্ষা করে পল্টনে ভিড়

বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত

কুলাউড়ায় সুলতান মনসুরের বিপরীতে কে?