শেরপুরে আবাসিক এলাকায় ‘মিনি পতিতালয়, আটক ৭

বাংলারজমিন

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি | ২৩ জুন ২০১৮, শনিবার
বগুড়ার শেরপুরে আবাসিক এলাকায় বাসা-বাড়ি ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পৌরশহরসহ উপজেলার একাধিক এলাকার বাসা-বাড়িতে গড়ে তোলা হয়েছে ‘মিনি পতিতালয়’। মোটা অঙ্কের টাকার চুক্তিতে দিনে-রাতে চালানো হচ্ছে এসব অনৈতিক ব্যবসা। পাশাপাশি ওইসব মিনি পতিতালয়ে রকমারি মাদকদ্রব্য ইয়াবা, ফেনসিডিল, গাঁজা ও বাংলা মদ সরবরাহ করা হয়। তবে ইতিমধ্যে এসব মিনি পতিতালয়ে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। অভিযানের প্রথমদিনেই গত ১৯শে জুন উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের মদনপুর এলাকার একটি বাড়ি থেকে খদ্দেরসহ সাতজনকে আটক করা হয়েছে।
কিন্তু পুলিশের উপস্থিতি আঁচ করতে পেরে আরো ছয় খদ্দের পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করতে পারেনি পুলিশ। আটককৃতরা হলেন- মদনপুর গ্রামের মৃত মঞ্জুরুল ইসলামের স্ত্রী হালিমা বেওয়া ওরফে নাড়ি (৫২), তার বোন স্বামী পরিত্যক্তা শাহিদা খাতুন (৩৫), পাশের সীমাবাড়ী ইউনিয়নের ধনকুণ্ডি গ্রামের আবুল কাশেমের স্ত্রী রিক্তা খাতুন (২৮), সূত্রাপুর গ্রামের হাফিজার রহমান (৪০), ফজর আলী (৩০), মহিপুর নতুনপাড়া গ্রামের শাহ আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম (২০) ও নন্দীগ্রাম উপজেলার রুপিহার গ্রামের সাগর মিয়া (২২)। শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) বুলবুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মদনপুর গ্রামস্থ ওই বাড়িতে দেহ ব্যবসা চালানো হচ্ছিল। স্থানীয় ও আশপাশের এলাকা থেকে মেয়েদের নিয়ে এসে জমজমাটভাবে চালানো হতো এই অনৈতিক কর্মকাণ্ড। তাই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালানো হয়। পাশাপাশি আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে গতকাল জেলহাজতে পাঠানো হয় বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান। এদিকে অনুসন্ধানে জানা যায়, পৌরশহরসহ উপজেলার বিভিন্ন আবাসিক এলাকার অন্তত দশটি পয়েন্টে বাসা-বাড়ি ভাড়া নিয়ে জমজমাটভাবে দেহ ব্যবসা চালানো হচ্ছে। এরমধ্যে মির্জাপুর ইউনিয়নের মদনপুর, রাজারদীঘি, খানপুর ইউনিয়নের শালফা, শহরের উত্তরসাহা, কলেজ রোড নবমী সিনেমা হল এলাকা ও খন্দকারটোলা গ্রাম উল্লেখযোগ্য। এসব মিনি পতিতালয়ে বোরকা পরে নারীরা আসে। এরমধ্যে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী এবং অভিজাত পরিবারের মেয়েরাও রয়েছেন বলে জানা গেছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

১০ বাংলাদেশি লিবীয় উপকূলে জীবিত উদ্ধার

প্যারিস বিমানবন্দরে ফ্রান্স টিম

ফ্রান্সের রাস্তায় রাস্তায় স্লোগান আমরা চ্যাম্পিয়ন

মামলা, পুলিশ কর্মকর্তার মাথায় পিস্তল ঠেকানোর অভিযোগ আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে

ওসমানী হাসপাতালে স্কুলছাত্রী ধর্ষিত, ইন্টার্ন চিকিৎসক আটক

বাংলাদেশের নির্বাচনে একপেশে নীতি ভারতের পক্ষে যাবে না

বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের ওপর হামলা নজিরবিহীন

মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করিনি

যারা শিক্ষকের ওপর আঙ্গুল তোলে তারা ছাত্র নামের কলঙ্ক

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিরপেক্ষ থাকার নির্দেশ মাহবুব তালুকদারের

প্রত্যেক উপজেলায় ‘স্বতন্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্র’ হচ্ছে

নিখোঁজ তারেকের সন্ধান চায় পরিবার

সরকারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি বিটিআরসির

শফিককে জবাব দিতে মাঠে লুনা

নজর কাড়ার চেষ্টায় বিএনপি লিটন বলছেন মিথ্যাচার

২,১৫৪ জনে অনাপত্তি মিয়ানমারের তবে...