পর্যটকের ভীড়ে মুখর পাহাড় ঘেরা বান্দরবান!

অনলাইন

নুরুল কবির, বান্দরবান | ১৯ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার, ২:৫২
উঁচু-নিচু পাহাড়। সর্পিল রাস্তা। ঘন সবুজ বন। মেঘে ঢাকা আকাশ। দুই পাহাড়ের কোল ঘেষে চলা সরু রাস্তা। মিশে গেছে আকাশের সঙ্গে।
পার্বত্য অঞ্চল বান্দরবানে এমন অপরূপ সৌন্দর্য হাতছানি দেয়। তাইতো প্রতি বছর সৌন্দর্য্য পিপাসুদের ভিড় উমে উঠে এখানে। সম্প্রতি বন্যা ও পাহাড় ধসের আশঙ্কায় এবার ঈদে পর্যটক না আশার শঙ্কায় হতাশ হয়েছিল বান্দরবানের পর্যটন সংশিষ্ঠ ব্যবসায়ীরা। কিন্তু তাদের হতাশায় ভাটা পড়েছে। ঈদের ছুটিতে বান্দরবানের বিভিন্ন পর্যটন স্পট ঘুরে দেখা গেছে পর্যটকদের উপচে পড়া ভীড়। সেনাবাহিনীর পরিচালিত নীলগিরি জেলা প্রশাসন পরিচালিত মেঘলা, নীলাচল,এবং স্বর্ণ মন্দির সব জায়গা এখন পর্যটকদের পদচারণায় মুখর। শিশু বৃদ্ধ যুবক যুবতিরা তাদের প্রিয়জনদের নিয়ে চাঁদের গাড়ীতে করে ঘুরে বেড়াচ্ছে দর্শনীয় সব স্থান। কেউ কেউ ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পরিবারের সঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছে এসব দর্শনীয় স্থান।
নীলাচলে বেড়াতে আসা পুরান ঢাকার রহমত উল্লাহ জানান,বান্দরবান খুবই সুন্দর জায়গা। এখানে না আসলে বুঝা যেত না বাংলাদেশ এতো সুন্দর। মেঘলা আবহাওয়ায় পাহাড় এতো  সুন্দর দেখায় এটা আগে জানতাম না এখানে না এলে সেটা বুজতেও পারতাম না। আবার অনেক পর্যটক ছুটে যাচ্ছে থানচি ও বগালেকের সৌন্দর্য্য দেখতে। তবে বর্ষাকাল হওয়ায় বেশি দূর যেতে পারছেন না তারা। নদীতে পানি  বেশি থাকায় যাওয়া যাচ্ছে না নাফাকুম অমিয়াকুম সহ থানচির বেশ কয়েকটি পর্যটন স্পটে। তাই লোকাল স্পট গুলোতে ঘুরতে ব্যস্ত পর্যটকরা। শহরের রেস্টুরেন্টগুলোতেও লক্ষ্য করা গেছে পর্যটকদের ভীড়। তবে ঈদ উপলক্ষে বেশির ভাগ রেস্টুরেন্ট বন্ধ থাকায় চাপ পেতে হচ্ছে রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীদের।
বান্দরবান জামান রেস্টুরেন্ট এর মালিক গিয়াস উদ্দীন মাস্টার বলেছেন,পর্যটক গতবারের তুলনায় একটু কম তবে ঈদ উপলক্ষে অনেকগুলো রেস্টুরেন্ট বন্ধ তাই যেগুলো খোলা আছে সেগুলোতে একটু চাপ পড়ছে। দোকানের স্টাফরাও ছুটিতে তাই সামাল দিতে কিছুটা কষ্ট হচ্ছে।
ঈদের আগে বুকিং ক্যান্সেল হওয়ায় হতাশ হলেও ঈদের একদিন পর থেকে পর্যটক আসায় খুশি হোটলে ব্যবসায়ীরাও। বান্দরবান শহরের হোটেল স্বর্ণশিলার মালিক মানিক চৌধুরী জানান, এবার ঈদের আগে রুম বুকিং দিয়েও অনেকে বাতিল করে দিয়েছিল তাই পর্যটক আসবে না ভেবে খুবই হতাশ হয়েছিলাম কিন্তু আবহাওয়া ভাল হওয়ায় ঈদের একদিন পর থেকে পর্যটকদের আগমন শুরু হয়েছে।
আমাদের বেশির ভাগ রুম বুকিং আগামি দুয়েক দিনের জন্য অনেকে রুম বুকিং দিয়েছে আশা করি আরো পর্যটকের সমাগম ঘটবে।
বান্দরবান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) ইয়াছির আরাফাত জানান,পর্যটকদের ভ্রমনকে নিরাপদ করতে এবং কোথাও কোন পর্যটক যাতে হয়রানির শিকার না হয় সেজন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও টুরিস্ট পুলিশ রয়েছে তারা সার্বক্ষণিক টহল দিচ্ছে। এবং বিভিন্ন জায়গায় আমাদের নাম্বার দেয়া হয়েছে। কোথাও কোন পর্যটক হয়রানির শিকার হলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে আমরা সাথে সাথে ব্যবস্থা গ্রহন করব।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘নিজেকে আমি বন্দী রাখতে চাই না’

রাজশাহীতে ক্রমশ ঘোলাটে হচ্ছে পরিবেশ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গ্রন্থাগারে হচ্ছে বঙ্গবন্ধু কর্নার

কুষ্টিয়ায় মাহমুদুর রহমানের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

আইএসআই আমাকে প্রধান বিচারপতি বানাতে চেয়েছিল

সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে সরোয়ারের শঙ্কা

ঢাবিতে সমাবেশ ছাত্রলীগের মারধর

আইটিইউ নির্বাচনে জয় চায় বাংলাদেশ

শিল্পনগরীর বেহালদশা, রপ্তানিতে পিছিয়ে পড়ছে চামড়া শিল্প

যুক্তরাষ্ট্রে বেক্সিমকো ফার্মার চতুর্থ ওষুধ রপ্তানি শুরু

জন্মদিনের পার্টির কথা বলে ডেকে তরুণীকে গণধর্ষণ

তিন সিটিতে প্রচারণায় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ

মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা ঢাবি শিক্ষকদের

মাহমুদুর রহমানকে নিরাপত্তা দিতে আসেনি পুলিশ: ফখরুল

অ্যানি আলী খানের মরদেহ উদ্ধার