ফেসবুকে প্রেম এবং বাংলাদেশী যুবতীর পরিণতি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৯ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:২৫
ফেসবুকে তাদের পরিচয়। তারপর আস্তে আস্তে ভারতের কেরালায় বিলাসী জীবনযাপনকারী লিপিন পান্নাপ্পান (২৯) এর সঙ্গে প্রেম গড়ে ওঠে বাংলাদেশী এক যুবতীর। তিনি বাংলাদেশের একটি সুপরিচিত পরিবারের সদস্য। দেশে বিবাহিত ছিলেন তিনি। কিন্তু স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটেছে তার। ততদিনে তিনি এক কন্যা সন্তানের মা হয়ে গেছেন। সেই যুবতীর সঙ্গে প্রেম করেন লিপিন। এক পর্যায়ে প্রেম থেকে বিয়ে হয় তাদের।
লিপিনের দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে তার ঘরে ওঠেন বাংলাদেশী ওই যুবতী। কিন্তু প্রায় দেড় বছরের মাথায় তাকে ও তার কন্যাকে ফেলে যায় লিপিন। বাধ্য হয়ে বাংলাদেশী ওই যুবতী কেরালায় পুলিশের দ্বারস্থ হন। পুলিশ সময়ক্ষেপণ না করে লিপিনকে জেলে ঢুকিয়ে দিয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন মুম্বই মিরর। এতে বলা হয়, কেরালার মাভেলিক্কারার বাসিন্দা লিপিন। দুই স্ত্রী ঘরে রেখে চলছিল তার বিলাসী জীবন। কিন্তু দ্বিতীয় স্ত্রী থানায় অভিযোগ দেয়ার পর লিপিনের এখন ঠাঁই হয়েছে জেলখানা। ১৭ই জুন তাকে গ্রেপ্তার করে জেলে ঢুকিয়েছে পুলিশ। ওইদিন তাকে গ্রেপ্তার করে এরনাকুলাম সেন্ট্রাল পুলিশ। ওই পুলিশ স্টেশনের সার্কেল ইন্সপেক্টর অনন্তলালের মতে, ২০১৪ সালে ফেসবুকে ওই বিদেশী নারীর সঙ্গে পরিচয় ও প্রেম হয় লিপিনের। লিপিনকে ওই নারী জানিয়ে দেন তিনি বিবাহিত। তা সত্ত্বেও তার প্রতি লিপিনের আগ্রহ বাড়তেই থাকে। অন্যদিকে থিরুভানান্তপুরামে অন্য এক যুবতীর প্রেমে পড়ে যায় লিপিন। এক পর্যায়ে তাকে বিয়ে করে। এই স্ত্রীকে নিয়ে লিপিন ঘর পাতে এরনাকুলামে। এর কিছুদিন পর তার ভারতীয় এই স্ত্রী মধ্যপ্রাচ্যের একটি দেশে চাকরি পান। তিনি চলে যান সেখানে। বিদেশ থেকে স্ত্রী টাকা পাঠান আর লিপিন তা দিয়ে বিলাসী জীবন যাপন করতে থাকে। এই টাকা দিয়েই সে ২০১৭ সালে চলে আসে ঢাকা। এখানে এসে সে নতুন নাম ধারণ করে এবং বাংলাদেশী ওই যুবতীকে বিয়ে করে। নতুন স্ত্রীকে নিয়ে যায় এরনাকুলামে। সেখানে ইনফোপার্কের কাছে একটি ফ্লাটে তোলে তাকে । এরপর আরেকটি বাসায় চলে যান তারা। এভাবেই সময় এগুতে থাকে। এক পর্যায়ে লিপিনের ভারতীয় স্ত্রী ও এ নিয়ে মিথ্যা কথার বিষয়টি আবিস্কার করে ফেলেন বাংলাদেশী ওই যুবতী। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঘন ঘন ঝগড়া হতে থাকে। ততদিনে লিপিনের ভারতীয় স্ত্রী জেনে যান যে, তার স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন। ফলে তিনি লিপিনের কাছে টাকা পাঠানো বন্ধ করে দেন। এ ঘটনার ফলে কন্যা সহ বাংলাদেশী স্ত্রীকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ফেলে যায় লিপিন। এ অভিযোগের ভিত্তিতে গত রোববার লিপিনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাকে আদালতে তোলা হলে ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Rahman

২০১৮-০৬-১৯ ০৯:৫১:৩৯

আসলে এইসহ বলে কিছু হবে না, আমাদের মেয়েদের একটু কুটকুটানী বেশী....আর সে জন্যই এইসব ছেলেরা এগুলো করতে সাহস পায়, আর মেয়েরাও বেলজ্জা, বেহায়া একটু পয়সা বা ভারতীয় দেখলেই জূলে পড়তে হবে......আর ফেসবুক থেকে কেন প্রেম করবেন......এটা শ্রেফ মিথ্যা বলার মেশিন....এই মেশিনে যত পারে মিথ্যা বলতেই পারে....তাই সমস্ত যুবতী মেয়েদের আবারও বলছি বেচেঁ থাকাটাই আসল ব্যাপার....প্রেম করে মরার কোন মানে নেই.....যত সহ ফালতু.....

kazi

২০১৮-০৬-১৯ ০১:০০:৫৩

মন্তব্য নিষ্ফল । অনেক মন্তব্যে সাবধান করেছি বাংলাদেশি যুবতীদের এ ধরণের ঘটনা প্রকাশের পর। যারা ফেসবুকে প্রেম করে জীবন দিয়েছে বা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তা থেকে শিক্ষা নিতে। যারা এখনও বিপদে পড়ে নি আবার সাবধান করছি এই ঘটনাবলী থেকে শিক্ষা নেও। ফেসবুক বন্ধু শুদুই বন্ধু থাক। প্রেমে জড়িয়ে পড়ো না।

আপনার মতামত দিন

খালেদার গুলশান কার্যালয়ের ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্নের অভিযোগ

মাদার অব হিউম্যানিটি পদক প্রদানের সিদ্ধান্ত

খালেদার সাজা স্থগিতের আবেদন

তারেকের ব্যাপারে ইসির কিছু করার নেই

আওয়ামী লীগের প্রার্থিতা এখনো চূড়ান্ত হয়নি

ভালো প্রার্থীদের জামিন না দিয়ে শুনানি বিলম্ব করা হচ্ছে

ছাত্রদল নেতার পরিবারের আর্তি

বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল

বিবিসি’র প্রেরণাদায়ী নারীর তালিকায় সেই মা

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সব সমন্বিত পরিকল্পনা নিন

দ্বিতীয় দিনের মতো বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার, নেতাকর্মীদের ভিড়

শ্রিংলা বললেন জড়িত হওয়ার সুযোগ নেই

গণফোরামে সাবেক ১০ সেনা কর্মকর্তা

‘প্রশাসন-পুলিশের ভূমিকা পক্ষপাতমূলক নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি হয়নি’

নারায়ণগঞ্জে সাত খুন মামলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

আমজাদ হোসেনের শারীরিক অবস্থার অবনতি