পাকুন্দিয়ায় গণধর্ষণের ঘটনায় তিন ধর্ষক কারাগারে

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে | ১৪ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার
কিশোরগঞ্জের কিশোরীকে পাকুন্দিয়ায় নিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার তিন ধর্ষকের মধ্যে এরশাদ (২৫) নামে একজন দোষ স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। অপর দুই ধর্ষককে ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়ার পর পরবর্তীতে শুনানি সাপেক্ষে কারাগারে পাঠানো হয়। পলাতক দুই ধর্ষক নাছিম এবং মামুনকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শাহাবুদ্দিন জানিয়েছেন।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পাকুন্দিয়া থানার এসআই মো. শাহাবুদ্দিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মারিয়া এলাকার কিশোরী স্কুলছাত্রীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে প্রেমের ফাঁদ পেতে পাকুন্দিয়া উপজেলার শালঙ্কা গ্রামের আব্দুল মোতালিবের ছেলে বাদশা মিয়া কৌশলে রোববার (১০ই জুন) বিকালে পাকুন্দিয়ায় নিয়ে যায়। পরে রাতে একটি স্থানে নিয়ে গিয়ে অপর চার সহযোগীসহ পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ছাত্রীটি বর্তমানে কিশোরগঞ্জ শহরের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে বাদশা, শালঙ্কা গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে এরশাদ ও দুলাল মিয়ার ছেলে রুস্তমকে এলাকা থেকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে পাকুন্দিয়া থানায় গ্রেপ্তার হওয়া তিন ধর্ষক এবং শালঙ্কা গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে নাছিম (২১) ও ছোট আজলদী গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে মামুন (৩০) এই পাঁচজনকে আসামি করে মামলা করেছেন।
মঙ্গলবারই তিন ধর্ষককে আদালতে নিয়ে গেলে এরশাদ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিমানবন্দরে আত্মহত্যার চেষ্টা করা রুনা বললেন আমি মরতে চাই

দুর্নীতিবাজদের নিয়ে জোট করে সরকার উৎখাতের চেষ্টা হচ্ছে

সহস্রাধিক সাইট পেজে নজরদারি

সাধারণের ভোট ভাবনা

মেজর (অব.) মান্নানকে দুদকে তলব

ডিজিটাল আইন স্বাধীন সাংবাদিকতার অন্তরায়

২৯শে সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের নাগরিক সমাবেশ

ঢাকায় বৃহস্পতিবার বিএনপি’র সমাবেশ

জগাখিচুড়ির ঐক্য টিকবে না

৫৭ ধারার মামলায় চবি শিক্ষক কারাগারে

পদ্মার ডান তীরে ভাঙন ফের আতঙ্ক

মালদ্বীপে বিরোধীদের অভাবনীয় জয়

চট্টগ্রামে গণধর্ষণের শিকার দুই কিশোরী

বিচারকের প্রতি দুই আসামির অনাস্থা

ভালো মানুষকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন: প্রেসিডেন্ট

শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাওয়ার কথা বলেননি ড. কামাল