গাংনীতে ৪৫ প্রকল্পে কাজ করছেন দুই হাজার শ্রমিক

বাংলারজমিন

মেহেরপুর প্রতিনিধি | ১২ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার
মেহেরপুরের গাংনীতে অতিদরিদ্রদের কর্মসূচির কল্যাণে কর্মসংস্থান পেয়েছে ১ হাজার ৭০৬ জন হতদরিদ্র নারী-পুরুষ। গাংনী উপজেলার ৪৫টি প্রকল্প বাস্তবায়ন ও উন্নয়নে কাজ করছেন তারা। শ্রমিকদের মজুরি কম হলেও তাদের হাড়ভাঙ্গা শ্রমের ফলে উপজেলার উন্নয়নে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা। প্রকল্পের কাজ শতভাগ বাস্তবায়ন করতে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছেন প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস।
কৃষি নির্ভরশীল জেলা মেহেরপুর। এখানে নেই কলকারখানা বা শিল্প-প্রতিষ্ঠান।
অনেকেই দিনযাপন করেন দারিদ্র্যসীমার নিচে। শুষ্ক মৌসুমে দরিদ্র শ্রমিকেরা কাজের অভাবে বাড়িতে কাটান অলস সময়। কাজের অভাবে অনাহারে-অর্ধাহারে দিনাতিপাত করেন। জীবন চালাতে অনেকেই বিভিন্ন এনজিও সংস্থার কাছে কিস্তির টাকায় নাজেহাল হয়ে পড়তেন। ভুক্তভোগীরা যাতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতে পারে, সে লক্ষে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে বাংলাদেশ সরকার চালু করেছে ‘অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসূচি’ (ইজিপিপি) প্রকল্প।
২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে প্রথমপর্যায়ে প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য গাংনী উপজেলায় ১ হাজার ৭০৬ জন উপকারভোগীর বরাদ্দ পেয়ে ৪৫টি প্রকল্পের মাধ্যমে উন্নয়ন কাজ শতভাগ সুন্দরভাবে শেষ করে দ্বিতীয়পর্যায়ের কাজ চলমান রয়েছে। প্রাপ্ত বরাদ্দে উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের আয়তন ও জনসংখ্যার ভিত্তিতে বিভাজন করে মজুরি পরিশোধের জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাংকসমূহে নথি প্রেরণ করা হয়েছে। কয়েকটি ইউনিয়নের বেশ কিছু প্রকল্প ঘুরে দেখা গেছে শ্রমিকদের শতভাগ উপস্থিতিতে গৃহীত প্রকল্পের শ্রমিকেরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করছেন।
প্রকল্পের আওতায় কাজ করে সংসারে সচ্ছলতা এনেছেন এমন কথা জানালেন বিধবা নারী জাহানারা বেগম। তবে, তিনি মজুরি বৃদ্ধির দাবি করেন। কাজের মান সন্তোষজনক বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। প্রকল্প চালু থাকায় গ্রামগঞ্জের চলাচলের অযোগ্য রাস্তা-ঘাট আজ চলাচলের যোগ্য হয়ে উঠেছে বলে দৈনিক মানবজমিনকে জানালেন স্থানীয় রফিকুল ইসলাম। সেই সঙ্গে মাঠঘাট থেকে কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসলাদি খুব সহজেই ঘরে তুলতে সক্ষম হচ্ছেন বলে জানান তিনি। রাইপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম সাকলায়েন সেপু জানান, তার ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকেও কাজ দেখভাল করা হয়, যাতে কাজে কারচুপি না হয়। ইউপি সদস্যসহ তিনি নিজেও কাজ বুঝে নেন। এ প্রকল্পের আওতায় তার ইউনিয়নের চলাচলের অযোগ্য রাস্তাগুলো বর্তমানে চলাচলের যোগ্য হয়েছে। একই সঙ্গে উপজেলার অবহেলিত রাস্তাঘাটের উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখতে ইজিপিপি প্রকল্প গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বলে জানান, কাথুলী ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান রানা।
প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার দিলিপ কুমার সেন জানান, কাজ বাস্তবায়নের জন্য ট্যাগ অফিসার দেয়া হয়েছে। তারা তাদের দায়িত্বের প্রতি গুরুত্ব দিয়ে শতভাগ কাজ করার চেষ্টা করছেন। ইতিমধ্যে কাজের ১ম ধাপ শেষ হয়েছে সাফল্যের সঙ্গে। এ পর্যায়েও সুন্দরভাবে কাজ বাস্তবায়ন হবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ড. কামাল-বি. চৌধুরীর বৈঠক

খাগড়াছড়িতে আধাবেলার সড়ক অবরোধ চলছে

ফেনিতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই যুবক নিহত

‘ঈদের দিন প্রেক্ষাগৃহে বসে দর্শকদের সঙ্গে ছবি দেখব’

পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে ১০ পশ্চিমা দূতের বৈঠক

বস্তিবাসীদের জন্য গড়ে তোলা হবে বহুতল ভবন: প্রধানমন্ত্রী

ট্রেনের শিডিউল লণ্ডভণ্ড, দুর্ভোগ

নওশাবার মুক্তি চেয়ে শিল্পী সংঘের বিনীত অনুরোধ

শহিদুল ও আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তি দাবি

অবশেষে ৪২ শিক্ষার্থীর জামিন, পরিবারে স্বস্তি

আলোর মুখ দেখছে সরকারি চাকরি আইন

কোটা আন্দোলনের নেতাদের পরিবারে কান্না

পবিত্র আরাফাত দিবসে আজ হজ

জমে উঠেছে পশুর হাট, বেড়েছে বিক্রি

অবরুদ্ধ করে মওদুদের গুরুত্ব কেন বাড়াবো

পুলিশ আমাকে বলেছে, বাড়ি থেকে যেন বের না হই