এফবিআইর এক্স বস কোমির নতুন বই (পর্ব-৪)

ট্রাম্প ও তার পুরো টিমের মুখোমুখি হয়েছিলাম আমি

বই থেকে নেয়া

মানবজমিন ডেস্ক | ২৮ মে ২০১৮, সোমবার
উইলিয়াম কোমি, যিনি এফবিআইয়ের পরিচালক হওয়ার আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আটর্নি জেনারেল ছিলেন, তিনি তার বহুল আলোচিত নতুন বই (‘এ হায়ার লইয়ালটি, ট্রুথ, লাইজ এন্ড লিডারশিপ’)-এ অনুপুঙ্খ বর্ণনা করেছেন, সেই দিনের কথা, যখন তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিতে অপেক্ষমাণ ডনাল্ড ট্রাম্পের কাছে মস্কোর পতিতাদের প্রসঙ্গে আলোচনা করতে গিয়েছিলেন।
২০১৭ সালের শুরুর কথা। ক্লিনটনের মামলার বিতর্কিত বিষয়াবলির সূত্রে আমি ততদিনে পরিচিত ব্যক্তিত্ব হয়ে উঠেছিলাম। এমনকি আমি যদি দৃশ্যপটের আড়ালেও থাকতে চাইতাম, আমার উচ্চতাই তখন আমাকে বাধা দিত। এটা স্পষ্ট হয়ে উঠেছিল যে, যে কোনো সংখ্যক রিপাবলিকান হিলারি ক্লিনটনের এই বিশ্বাসকে সত্য ধরে নিয়েছিলেন যে, ট্রাম্পের অনকূলে আমি নির্বাচনকে প্রভাবিত করেছিলাম। যত বেশি সংখ্যায় ক্লিনটন শিবিরের সমর্থকরা আমার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছিলেন, তত বেশি মাত্রায় ট্রাম্প শিবিরে আমি কিছুটা হলেও একজন সেলিব্রিটি হয়ে উঠেছিলাম। আর সেই বিবেচনায় ট্রাম্প টাওয়ারে আমার প্রবেশকে সত্যিই অস্বস্তিকর করে তুলেছিল। এই ধরনের পরিস্থিতিতে অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানরা যেভাবে আচরণ করতেন, আমি তাদের থেকে আলাদা কিছু করতে চাইনি।
ট্রাম্প সংগঠনেরই একটি ছোট সম্মেলন কক্ষে আমরা সমবেত হলাম। কক্ষটি সোনালি সিলিংয়ে এতটাই সুসজ্জিত যে তা ভবনটির কাঁচের দেওয়াল ঢেকে দিয়েছে।
অন্যথায় আমাদের বৈঠক হলওয়ে থেকে দেখা যেত। ঘড়ির কাঁটা যথাস্থানে স্থির হতেই সেখানে প্রবেশ করলেন প্রেসিডেন্ট-ইলেক্ট, তার সঙ্গে এলেন ভাইস প্রেসিডেন্ট-ইলেক্ট এবং হোয়াইট হাউস টিমের বাদবাকি জ্যেষ্ঠ সদস্যরা।
সেই প্রথম আমি ডনাল্ড ট্রাম্পের মুখোমুখি হলাম। হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গে বিতর্ক মঞ্চে তাকে যেভাবে দেখেছিলাম, তার থেকে তাকে একটু খর্বকায় মনে হলো। অন্যথায়, তাকে যেভাবে টিভি পর্দায় দেখা যায়, আমি তাকে সেভাবেই দেখতে পেলাম, সেটা আমাকে বিস্মিতই করলো। কারণ সাধারণত পর্দার মানুষ থেকে বাস্তবে একটু আলাদাই মনে হয়। তার স্যুট জ্যাকেট খোলা ছিল, আর তাই টাই স্বাভাবিকভাবেই ছিল লম্বা। তার মুখম-ল কিছুটা কমলা রঙ্গের এবং তার চোখের নিচে উজ্জ্বল শ্বেত অর্ধচন্দ্র প্রতীয়মান হলো। ধারণা হলো তিনি সেখানে মসৃণ চামড়াজাত ফ্রেমের গগলস ব্যবহার করেন। সেইসঙ্গে তার মনোমুগ্ধকর উজ্জ্বল ব্লন্ড চুল তো ছিলই। খুব যতেœর সঙ্গে দেখলে এসবই কারো চোখে পড়বে। আমি এটা ভেবেও বিস্মিত ছিলাম যে, এমন পরিপাটি বেশ নিতে সেই সকালে তিনি কতটা সময় ব্যয় করেছিলেন। করমর্দনের জন্য তিনি তার হাত বাড়িয়ে দিতেই তার আকৃতি সম্পর্কে আমি মনে মনে একটা আন্দাজ করে নিলাম। তার হাত আমার চেয়ে ছোট কিন্তু তা অস্বাভাবিক মনে হলো না।
একটি ছোট্ট সম্মেলন কক্ষে ট্রাম্প তার সিনিয়র টিমের সব সদস্য জড়ো করেছিলেন। ভাইস প্রেসিডেন্ট-ইলেক্ট মাইক পেন্স, চিফ অব স্টাফ রিন্স প্রাইবাস, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইক ফ্লিন এবং প্রেস সেক্রেটারি শ্যন স্পাইসার ডিম্বাকৃতির একটি টেবিলে ট্রাম্পের সঙ্গেই বসলেন। পেন্স বসলেন তার বিপরীত সারির শেষপ্রান্তে। তারা সবাই শান্ত তবে সিরিয়াস ছিলেন। করমর্দন পর্বে ভাইস প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট অতিরিক্ত কয়েক সেকেন্ড বেশি সময় নিয়েছিলেন। আর তিনি আমার ডাকনামটি একটু দীর্ঘ যতিতে উচ্চারণ করেছিলেন,‘জি-ই-ই-ম-মমম’। তাতে আমি ঈষৎ ভ্যাবাচেকাই খেলাম, কারণ এমনটা কোনো পুরনো বন্ধুকে শুভেচ্ছা এবং তাকে সান্ত¡না জানাতেই কেউ করে থাকেন। আমি মনে করতে পারি না যে, আমাদের কখনো সাক্ষাৎ ঘটেছিল, তবে ১৪ বছর আগে ২০০৩ সালে তার সঙ্গে আমার যে টেলিফোনে কথা হয়েছিল, সেটা আমি স্মরণ করতে পারি। ম্যানহাটনে তখন আমি যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে কর্মরত।
আমরা তখন এমন এক লোক বিষয়ে তদন্ত করছিলাম, যে কিনা শিশুদের জন্য জনপ্রিয় ওয়েবসাইটের ভুল বানানে একটি বিকৃতি এনেছিল। যেমন ডিজনিল্যান্ডডটকম কিংবা ববদিবিল্ডারডটকম টাইপ করতে গিয়ে শিশুরা ভুল বানান লিখলে তা তাদের পর্ণো ওয়েবসাইটে নিয়ে যেত।

(চলবে)



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

যুবদল নেতাসহ ৯ নেতাকর্মী আটক

টেকনাফ ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত

বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানালেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী

নির্বাচন ঘনিয়ে আসায় বেড়েছে দমন-পীড়ন

‘আমার গানে তাদের উন্মাদনা দেখে অবাক হই’

প্রেস থেকে বিএনপি প্রার্থীর পোস্টার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

২০১৪ সালের আলোকে কৌশল প্রয়োজন

প্রতিটি ভোটই মূল্যবান

গুগল টপ সার্চলিস্টে বাংলাদেশিদের মধ্যে শীর্ষে খালেদা জিয়া

৩০ নির্বাচনী এলাকায় বাধা, হামলা, সংঘাত

তৃতীয় বেঞ্চের প্রতি খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের অনাস্থা

২৪শে ডিসেম্বর থেকে মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ

রব-মান্নাকে বাধা

আওয়ামী লীগ ১৬৮-২২০ আসনে জয়ী হবে

ধরপাকড় অব্যাহত মিলন গ্রেপ্তার