এফবিআই-র এক্স বস কোমির নতুন বই-১

মস্কোর একটি বিছানায় পতিতাদের দিয়ে মূত্রত্যাগ করান ট্রাম্প!

বই থেকে নেয়া

মানবজমিন ডেস্ক | ২৪ মে ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:২০
‘ইগো ড্রাইভেন অ্যা- পার্সোনাল লয়ালটি’, এই কথাটির বাংলা তরজমা করলে দাঁড়ায় , ‘অহংবোধ দ্বারা তাড়িত এবং ব্যক্তিগত আনুগত্য নিভর্র’, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বকে এভাবেই চিহ্নিত করেছেন বহুল আলোচিত চাকরিচ্যুত এফবিআই পরিচালক উইলিয়াম কোমি। কোমির ‘এ হায়ার লইয়ালটি, ট্রুথ, লাইজ এন্ড লিডারশিপ’’ বইটি প্রকাশের আগেই তুমুল ঝড় তুলেছিল। প্রকাশনা পরবর্তী গত কয়েকটি সপ্তাহ বিশ্বের প্রভাবশালী গণমাধ্যমগুলোতে বিরাট জায়গা করে নিয়েছে কোমির বই। প্রতিনিয়ত চলছে কোমির ফাঁস করে দেওয়া কতগুলো বেফাঁস কাহানি। ট্রাম্পের চমকপ্রদ, আলোচিত-সমালোচিত শাসনামলকে কোমি কতগুলো চমকপ্রদ অভিধায় ভূষিত করেছেন। যেমন তাঁর কথায়, ট্রাম্প হলেন একজন ‘মব বস’, জনতা ক্ষেপানো নেতা। আর তার শাসনামলটি হলো ‘আগুন লাগা বন।’’ এক বছরের কম সময় আগে কোমিকে নাটকীয়ভাবে অপসারণ করেছিলেন ট্রাম্প।

কারণ হিসেবে বলেছিলেন, কোমি ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কথিতমতে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ বিষয়ক তদন্ত মিজহ্যান্ডেল করেছিলেন। মার্কিন জাস্টিস ডিপার্টমেন্ট অবশ্য ঘোষণা দিয়েছে যে, কোমি এফবিআইয়ের পরিচালক থাকতে তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের ব্যক্তিগত সার্ভার তদন্ত করার মতো রাজনৈতিকভাবে সংবেদনশীল কিভাবে ডিল করছিলেন, সেবিষয়ে একটি তথ্যবিবরণী প্রকাশ করবে।
গত মাসের প্রথম সপ্তাহে ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় কোমিকে বিদ্রুপ করে লিখেছেন, হিলারির ব্যক্তিগত ইমেইল বিষয়ে তিনি যে তদন্তটি করেছিলেন সেটি ছিল সত্য আড়াল করা একটি কারচুপিপূর্ণ তদন্ত। তবে ইউএসএ টুডে ট্রাম্পের , পরিবর্তন চিহ্নিত করে বলেছে, এটা লক্ষণীয় যে, বইটি প্রকাশের আগে ট্রাম্প কোমিকে বলেছেন, মিথ্যাবাদী, একজন লিকার(তথ্য ফাসকারী)। বই প্রকাশের পরে বলেছেন, লোকটা মন্দ বটে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এফবিআই পরিচালক উইলিয়াম কোমির বইটি তুফান সৃষ্টি করেছিল, বেরুবার আগেই। সেই ঝড়ে এখনও আলোড়িত গোটা বিশ্বের মিডিয়া।

কোমি লিখেছেন, ট্রাম্প তাকে একটি ব্যাপকভাবে প্রচারিত অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন। আর সেটি হলো, একটি বিছানায় মূত্রত্যাগ করার জন্য তিনি একদা রুশ বেশ্যাদের অর্থ দিয়েছিলেন। ওই অভিযোগের সঙ্গে ব্রিটিশ গুপ্তচর ক্রিস্টোফার স্টিল জড়িত ছিলেন বলেও তথ্য ছিল। ট্রাম্প বিষয়টি এফবিআইকে তদন্ত করিয়ে একটা দায়মুক্তি নিতে চেয়েছিলেন, তার ভয় ছিল , তার বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগটি না জানি আবার তার স্ত্রী মেলিনা ট্রাম্প বিশ্বাস করে বসেন।

বইয়ের ১৯০ পৃষ্ঠায় কোমি লিখেছেন, দি স্টিল ডোশিয়ার নামে যে বিষয়টি মিডিয়ায় চাউর হয়েছিল, তাতে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে কিছু অদ্ভুত অভিযোগ ছিল। কোমির ভাষায়, ‘ওয়াইল্ড স্টাফ’ বা বন্য গল্প। অসমর্থিত অভিযোগের মধ্যে ছিল- ২০১৩ সালে মস্কো সফরের সময় রুশ পতিতাদের সঙ্গে তার যৌন সম্পর্ক। এছাড়া তিনি মস্কোর একটি হোটেলের একটি নির্দিষ্ট বিছানায় তিনি পতিতাদের দিয়ে মূত্রত্যাগ করিয়েছিলেন। কারণ রাশিয়া সফরকালে বারাক ওবামা ও তাঁর স্ত্রী হোটেল রিৎজ-কার্লটনের প্রেসিডেন্ট স্যুইটে অবস্থান করেছিলেন। অন্য আরেকটি অভিযোগ ছিল, রুশ গোয়েন্দারা আমেরিকার ভাবি প্রেসিডেন্টকে ব্ল্যাকমেইল করবেন বলে তার এসব র্কীতি ভিডিও করেছিলেন। কোমি লিখেছেন, পরিচালক ক্লাপার যুক্তি দিলেন, তার অনুমান মিডিয়া এসব বিষয় জেনে গেছে, এবং তারা যেহেতু রিপোর্ট করতে যাচ্ছে, তাই আমরা গোয়েন্দা কমিউনিটি এই সিদ্ধান্তে পৌঁছালো যে, বিষয়টি হবু প্রেসিডেন্টকে জানানো উচিত। ওবামার কাছে বিষয়টি তোলার পর তিনি কোনোই প্রতিক্রিয়া দেখালেন না। আমাদের কারো সঙ্গেই তিনি এ বিষয়ে কোনো কিছুই শেয়ার করেননি। তবে পরিমিত কন্ঠে তিনি (প্রেসিডেন্ট ওবামা) জানতে চাইলেন, তাহলে আপনারা তাকে ব্রিফ করার বিষয়ে কি পরিকল্পনা করেছেন? ক্লাপার ত্বরিত একবার আমাদের দিকে তাকিয়ে একটা লম্বা শ্বাস নিলেন। তারপর বললেন, আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, পরিচালক কোমি এবিষয়ে একা প্রেসিডেন্ট-ইলেক্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তুলে ধরবেন।

কোমি এরপর লিখেন, মি. ওবামা একটি শব্দও বললেন না। তিনি তার মাথাটি বাঁ দিকে কাত করলেন। এবং সরাসরি আমার দিকে তাকালেন। তার দুই ভ্রু নেচে উঠল। তার কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ল। তবে আমার মনে হল, তিনি একইসঙ্গে কৌতূক এবং উদ্বেগ বোধ করছেন। তার অভিব্যক্তিতে যেন এটাই ফুটে উঠেছে যে, আচ্ছা, গুড লাক তবে আপনাদের। আমি আমার পাকস্থলিতে একটি চাপ অনুভব করলাম।

(চলবে)



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

দেশের স্বার্থে নতুন মেরূকরণ হতে পারে

এমপিদের লাগাম টানছে না ইসি

স্টিয়ারিং কমিটিতে যারা থাকছেন

এনডিআই-এর নির্বাচনী ২০ দফা

সিলেটে একদিন পিছিয়েও সমাবেশের অনুমতি পায়নি ঐক্যফ্রন্ট

জাপার দুর্গে আওয়ামী লীগের দৃষ্টি

শিক্ষকদের সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

সৌদি আরবে শঙ্কায় লাখ লাখ বাংলাদেশি শ্রমিক

তিন জেলায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৪

তিনদিনের সফরে ঢাকায় এলিস ওয়েলস

টাঙ্গাইলে দীপু মনির জনসভা বাতিল, উত্তেজনা

খাসোগি হত্যার দায় স্বীকার সৌদির

ল্যান্ডমার্ক ম্যাচে মাশরাফিদের অন্য ‘লড়াই’

জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্ট ঘোষণা

‘ক্ষমতায় গেলে ৭ দিনের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল’

‘ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই’