দ্বিতীয় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চলছে নাজিব রাজাকের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৪ মে ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৮:০৬
কয়েকদিন আগেও তিনি ছিলেন ক্ষমতাধর একজন প্রধানমন্ত্রী। আর এখন আসামীর কাঠগড়ায়। হ্যাঁ, দ্বিতীয়বারের জন্য মালয়েশিয়া এন্টি করাপশন কমিশনে (এমএসিসি) দুর্নীতির অভিযোগের জবাব দিতে হাজির হয়েছেন মালয়েশিয়ার সদ্য ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। এসএসিসির সদর দফতরে আজ দ্বিতীয়বারের মতো তাকে প্রশ্নবাণে জর্জরিত করা হচ্ছে। অভিযোগ আছে তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে রাষ্ট্রীয় তহবিল ‘১ মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদ’ (১এমডিবি) থেকে প্রায় ৭০ কোটি ডলার নিজের ব্যক্তিগত ব্যাংক একাউন্টে স্থানান্তর করেছেন। আর এই টাকা স্থানান্তর হয়েছে এসআরসি ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি বিদ্যুত উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে।
এ নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে তাকে তলব করা হয় কমিশনে। সে অনুযায় ২১ শে মে মঙ্গলবার তিন হাজির হন কমিশনে। সেখানে টানা সাড়ে চার ঘন্টা প্রশ্নবানে তাকে জর্জরিত করেন তদন্তকারীদের একটি টিম। এরপর তাকে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয়বার কমিশনে হাজির হতে বলা হয়েছিল। সে অনুযায়ী স্থানীয় সময় সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে নাজিব রাজাক কমিশনে হাজির হন। একটি পুরো সাদা গাড়িতে ছিলেন তিনি। তাকে পুলিশি প্রহরায় নিয়ে যাওয়া হয় কমিশনের ভিতরে। এ সময় তিনি ওই ভবনের বাইরে দাঁড়ানো সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে স্মিত হাসেন ও হাত নাড়ান। তারপর ভিতরে প্রবেশ করেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছিল।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

খালেদার মুক্তির দাবিতে রিজভী’র নেতৃত্বে মিছিল

ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বিএনপির সিনিয়র নেতারা

ঈদের পর রাজপথ দখলে রাখবে আওয়ামী লীগ

নরসংদীতে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ১,আহত ৩০

ফেরত যাওয়া রোহিঙ্গাদের নির্যাতন করছে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ

মুঠোফোন ক্ষতি করে চোখের, শুক্রাণুরও

পাটুরিয়ায় যানবাহনের লম্বা লাইন, ফেরি চলছে ধীর গতিতে

কোটা আন্দোলনের আরও ১০ শিক্ষার্থী কারামুক্ত

মনবন্ধু আমাকে রেখে পাড়ি জমালো

শহিদুল আলমকে ভয় পায় কে?

কলকাতায় বাংলা ধারাবাহিকের শুটিং বন্ধ

ঘটনা ধামাচাপা দিতে জজমিয়া নাটক সাজানো হয়েছিল

গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় ব্যাংক কর্মকর্তাসহ নিহত ৫

জামালকে দেখতে ভিড়, তুলছেন সেলফিও

সন্তান জন্ম দিতে সাইকেলে করে হাসপাতালে গেলেন এক মন্ত্রী

শেষ মুহূর্তের পশুর হাট, ক্রেতা বেশি দামে ভাটা