শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগ নেতাদের ঢাকায় তলব

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২৩ মে ২০১৮, বুধবার
জেলা কমিটি থেকে সংসদ সদস্যসহ ৫ জন নেতাকে বহিষ্কার ও শেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীকে প্রত্যাহার করার বিষয়টি নিয়ে জেলা নেতাদের ঢাকায় তলব করে বৈঠক করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। দলের পক্ষ থেকে আগামী জাতীয় নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে পথচলার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। গতকাল রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিপু মনি, সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল উপস্থিত ছিলেন। আর শেরপুর জলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুইপ আতিউর রহমান আতিক, সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার পাল, সহসভাপতি শামছুন্নাহার কামাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া, নাজিমুল হক, নির্বাহী সদস্য, বদিউজ্জামান বাদশা, শেরপুর-৩ (শ্রীবরদী-ঝিনাইগাতী) আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী ফজলুল হক চান, নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ প্রমুখ। বৈঠক সূত্র জানায়, কেন্দ্রীয় নেতারা শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগকে আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে ব্যক্তিস্বার্থের ঊর্ধ্বে উঠে দলীয় স্বার্থকে গুরুত্ব দিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে চলার আহ্বান জানানো হয়। শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে বিষয়টি চরম আকার ধারণ করলে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশে শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের উভয় পক্ষকে ঢাকায় তলব করে বৈঠক বসে আওয়ামী লীগ। এদিকে বৈঠক শেষে হুইপ আতিকুর রহমান আতিক মানবজমিনকে বলেন, বৈঠকে দলের হাইকমান্ড থেকে যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানানো হয়েছে।
আমরা শিগগিরই জেলা কমিটির বৈঠক করবো। সেখান থেকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। গত শনিবার শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় নালিতাবাড়ী উপজেলা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা করা হয়। একইসঙ্গে শেরপুর-২ (নকলা-নালিতাবাড়ী) আসনের সংসদ সদস্য কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীকে শেরপুর থেকে প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। পাশাপাশি দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শেরপুর-৩ (শ্রীবরদী-ঝিনাইগাতী) আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী ফজলুল হক চানসহ পাঁচজনকে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি থেকে বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কার অন্য চারজন হলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শামছুন্নাহার কামাল, নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিয়াউল হক মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক মো. ফজলুল হক ও নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ। এছাড়া নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহকে অব্যাহতি দিয়ে তার স্থলে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ১নং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. বুরহান উদ্দিনকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

আলোচনা অনুষ্ঠানে অসত্য তথ্য দিলে জেল-জরিমানা

বাকস্বাধীনতা খর্বের প্রতিবাদে মাহবুব তালুকদারের ওয়াকআউট

জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে জিডি তদন্তে ডিবি

‘আইন পাস হয়ে গেছে, এখন কিছু করার নেই’

ভাঙনের মুখে বিকল্প ধারা

ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশ উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত

ভিন্ন চিত্র, নানা হিসাব

খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ ২৩শে অক্টোবর পর্যন্ত বাড়লো

সৌদি আরবের সঙ্গে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা স্মারক হচ্ছে

প্রশ্ন ফাঁস, ঢাবি’র ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ স্থগিত

নারী সাংবাদিকের বিরুদ্ধে এম জে আকবরের মামলা

মজুরি বাড়ায় রক্তক্ষরণ হচ্ছে -বিজিএমইএ

পুনরায় অসত্য তথ্য দিয়েছেন জাফরুল্লাহ- সেনাসদর

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে স্বাগত জানালো ২০ দলীয় জোট

হাঁটুভাঙা বিএনপি কোমর ভাঙা বুড়োর ঘাড়ে

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মাধ্যমে স্বাধীনতা সংগ্রামীরা এক জায়গায় এসেছেন: খসরু