সাভারে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ গাড়িতে আগুন, ফাঁকা গুলি, আহত ১০

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সাভার থেকে | ২২ মে ২০১৮, মঙ্গলবার
সাভারের উলাইলে একটি বাজার থেকে চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় ৫টি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ, কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন। আহতদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সাভার পৌর এলাকার কাতলাপুর মহল্লায় ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী আব্দুস সাত্তার মিয়ার বাড়ির সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের উলাইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বাজারে চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে সাভার উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা টিপু সুলতানের সঙ্গে পৌর ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। রোববার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ছাত্রলীগ নেতা টিপু সুলতান তার লোকজন নিয়ে উলাইল বাজারে চাঁদা আদায় করতে যায়।
এসময় কাউন্সিলরের নির্দেশে ব্যবসায়ীরা চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে কাউন্সিলরের লোকজন ছাত্রলীগ নেতা টিপু সুলতানকে মারধর করেন। এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে রাত সাড়ে ১১টার দিকে ১০-১২টি মোটরসাইকেল নিয়ে সন্ত্রাসীরা কাউন্সিলরের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় আশেপাশের লোকজনকে এলোপাতাড়ি মারধর করায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এবং কিছুক্ষণের মধ্যে পুরো এলাকার দোকানপাট ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ হয়ে যায়। অন্যদিকে সন্ত্রাসীদের হামলার জবাবে কাউন্সিলরের নাতি আসিফসহ অন্যরা ফাঁকা গুলি চালিয়ে এগিয়ে আসলে পিছু হটে হামলাকারীরা। একপর্যায়ে হামলাকারীদের ব্যবহৃত পাঁচটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। এসময় হামলাকারী ও কাউন্সিলর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় আহত হয় অন্তত ১০ জন। খবর পেয়ে সাভার মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও হামলার সঙ্গে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি। পৌর কাউন্সিলর হাজী আব্দুস সাত্তার বলেন, ছাত্রলীগ নেতা টিপু সুলতান আমার মার্কেটের ব্যবসায়ীদের কাছে চাঁদা দাবি করে। কিন্তু আমি ব্যবসায়ীদেরকে চাঁদা দিতে নিষেধ করায় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সন্ত্রাসীরা আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে হামলাকারীদের ধাওয়া দিলে পিছু হটে তারা। সাভার উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকুর রহমান বলেন, ছাত্রলীগের কেউ চাঁদাবাজির সঙ্গে জড়িত নয়। এরপরও আমার নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। আপাতত আমরা তাদের চিকিৎসার সুব্যবস্থা করছি। সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিনুল কাদির বলেন, উলাইল বাজার থেকে চাঁদা আদায়ের টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা টিপু সুলতান ও কাউন্সিলর গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি।


তবে এখনো হামলার ঘটনায় কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

খালেদার মুক্তির দাবিতে রিজভী’র নেতৃত্বে মিছিল

ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বিএনপির সিনিয়র নেতারা

ঈদের পর রাজপথ দখলে রাখবে আওয়ামী লীগ

নরসংদীতে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ১,আহত ৩০

ফেরত যাওয়া রোহিঙ্গাদের নির্যাতন করছে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ

মুঠোফোন ক্ষতি করে চোখের, শুক্রাণুরও

পাটুরিয়ায় যানবাহনের লম্বা লাইন, ফেরি চলছে ধীর গতিতে

কোটা আন্দোলনের আরও ১০ শিক্ষার্থী কারামুক্ত

মনবন্ধু আমাকে রেখে পাড়ি জমালো

শহিদুল আলমকে ভয় পায় কে?

কলকাতায় বাংলা ধারাবাহিকের শুটিং বন্ধ

ঘটনা ধামাচাপা দিতে জজমিয়া নাটক সাজানো হয়েছিল

গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় ব্যাংক কর্মকর্তাসহ নিহত ৫

জামালকে দেখতে ভিড়, তুলছেন সেলফিও

সন্তান জন্ম দিতে সাইকেলে করে হাসপাতালে গেলেন এক মন্ত্রী

শেষ মুহূর্তের পশুর হাট, ক্রেতা বেশি দামে ভাটা