স্বাগত মাহে রমজান

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ মে ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:০৭
বছর ঘুরে আবার এলো পবিত্র রমজান মাস। রহমত, বরকত ও মাগফিরাতের মাস। আত্মশুদ্ধির মাস। আজ জুমাবার দেশে শুরু হয়েছে পবিত্র রমজানুল মোবারক। দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ    বৃহস্পতিবার রাতে সেহ্‌রি খেয়ে রমজানের সিয়াম সাধনা শুরু করেছেন। গতরাত থেকেই শুরু হয়েছে মসজিদে মসজিদে তারাবিহ্‌। আজ সন্ধ্যায় ইফতারের মাধ্যমে পূর্ণ হবে প্রথমদিনের সিয়াম। রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠন নানামুখী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।
রমজানকে ঘিরে আয়োজন করা হবে বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানের। রমজান ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের কাছে পবিত্র একটি মাস। এই মাসে সিয়াম সাধনার পর ঈদুল ফিতর উদযাপন করেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ। রোজাকে আরবি ভাষায় সিয়াম বা সাওম, আর ফার্সিতে রোজা বলা হয়। সাওম অর্থ বিরত থাকা। আর শরীয়তের পরিভাষায় ফরজ রোজা রাখার নিয়তে সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত জিহ্বা অর্থাৎ কোনো কিছু পানাহার এবং স্ত্রী সহবাস থেকে বিরত থাকার নাম সাওম বা রোজা। মহান আল্লাহ্‌পাক রাব্বুল আলামীন মুমিন বান্দাদিগকে তাঁর কাছে টেনে নেয়ার জন্য এই পবিত্র মাসের রোজাকে তিন ভাগে বিভক্ত করেছেন। প্রথম দশদিন রহমতের, দ্বিতীয় দশদিন মাগফিরাতের এবং তৃতীয় দশদিন দোজখ থেকে মুক্তির জন্য। আল্লাহ্‌ পাকের নির্দেশে আকাশের মেঘমালা বছরের প্রথমে যে বারিধারা বর্ষণ করে থাকে, তাতে মৃত জমিন যেমন সুজলা-সুফলা, শস্য-শ্যামলা হয়ে পৃথিবীকে নবশক্তিতে বলিয়ান করে থাকে। অনুরূপভাবে মাহে রমজানের রোজা মুমিন বান্দাদের আত্মাকে নবশক্তিতে বলিয়ান করে। ইসলামের প্রথম স্তম্ভ নামাজ যেমন মুমিনদেরকে শিক্ষা দেয় শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তী হওয়ার তেমনি মাহে রমজানের রোজা শিক্ষা দেয়, তাক্‌ওয়া, সহিষ্ণুতা ও সংযম। এক মাস সংযম সাধনার পর পবিত্র ঈদুল ফিতর মুসলিম উম্মাহে নিয়ে আসে এক অনাবিল আনন্দ আর সুখের বার্তা।

এদিকে রমজানের পবিত্রতা রক্ষার আহ্বান জানিয়ে গত বুধ ও বৃহস্পতিবার বিভিন্ন সংগঠন রাজধানীসহ সারা দেশে মিছিল করে। প্রথম তারাবিহ উপলক্ষে গতকাল সন্ধ্যা থেকে রাজধানীর রাস্তাঘাট কিছুটা ফাঁকা হয়ে আসে। এরপর সেহ্‌রির আগে রাত জাগানিয়া দল বিভিন্ন এলাকায় স্লোগান দিয়ে রোজাদারদের ঘুম ভাঙায়। মাইকে মাইকে মসজিদের ইমামের আহ্বান-বয়ান ও সাইরেনে ঘুম ভাঙে অনেকের। এরপর পরিবারের সঙ্গে সেহ্‌রি গ্রহণ করে রোজা রাখেন। রোজাদারগণ যাতে নির্বিঘ্নে সিয়াম সাধনা করতে পারেন সে জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলো বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। রমজান উপলক্ষে বিভিন্ন সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সমসূচিতেও পরিবর্তন আনা হয়েছে। কিছু প্রতিষ্ঠান পুরো মাস ধরেই বন্ধ থাকছে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত। তবে গ্রাহক লেনদেন চলবে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত। আজ সন্ধ্যায় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেছে। ঈদের আগ পর্যন্ত চলবে এই কর্মসূচি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এবার বহিষ্কার হচ্ছেন বি চৌধুরী!

ইসির বৈঠকে কূটনীতিকদের উদ্বেগ আসছেন ইইউ’র দুই বিশেষজ্ঞ

বিদায় রুপালি গিটারের ফেরিওয়ালা

তিনদিনে ডিজিটাল আইনে ১৬ মামলার আবেদন

সিলেটে সমাবেশের অনুমতি মিলেনি

জনমতের প্রকৃত প্রতিফলন দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

আওয়ামী লীগ মাহবুব তালুকদারের পদত্যাগ চায় না

মহানবীর রওজা জিয়ারত করলেন প্রধানমন্ত্রী

সাড়ে ১৭ হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য ঘাটতি

আওয়ামী লীগে স্বস্তি বিএনপিতে টানাপড়েন

আঞ্জু জানেন না স্বামী বেঁচে নেই

শেষ কলামেও গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কথা লিখেছেন খাসোগি

সিলেটে চেয়ারম্যানপুত্রের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

ঢাকায় আকবরের নেটওয়ার্ক

এমপি রানার জামিন নামঞ্জুর

এরশাদের দিকে তাকিয়ে নেতাকর্মীরা