ঢাকার আকাশে দুটি বিমানের সংঘর্ষ কোনমতে এড়ানো গিয়েছিল

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১২ মে ২০১৮, শনিবার
ঢাকার আকাশে দুটি ভারতীয় বিমানের মুখোমুখি সংঘর্ষ কোনমতে এড়ানো সম্ভব হয়েছিল। দেরিতে পাওয়া খবরে জানা গেছে, গত ২রা মে ঢাকার আকাশে এই সংঘর্ষের আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল। তবে শুক্রবারই এটির কথা প্রথম জানা গেছে।  সেদিন কলকাতা থেকে আগরতলাগামী ইন্ডিগোর একটি বিমান এবং আগরতলা থেকে কলকাতাগামী এয়ার ডেকানের একটি বিমান প্রায় ৭০০ মিটারের মধ্যে এসে পড়েছিল। তবে বিমানের স্বয়ংক্রিয় সতর্কতা এলার্ম এমন দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা করেছে। জানা গেছে এয়ার ডেকানের বিমানটি ৯ হাজার ফুট উচ্চতায় ছিল। সেটি কলকাতায় নামার জন্য ক্রমশ নীচে নামছিল। ঠিক এই সময়ই ইন্ডিগোর বিমানটি উপরের দিকে ৮৩০০ ফুট উচ্চতায় যাওয়ার জন্য উঠছিল। একসময় দুটি বিমানের মধ্যে দূরত্ব কমে এসেছিল প্রায় ৭০০ মিটারে।
সেই সময়ই ট্রাফিক কলিসনস এভোয়ডেন্স সিস্টেম সতর্কতা বার্তা পাঠায়। কোন পথে গতি পরিবর্তন করলে বিপদ এড়ানো যাবে তাও জানিয়ে দেয় সতর্কতা মূলক বার্তা। দুটি বিমানের পাইলট সেই বার্তা পেয়েই মুহূর্তের মধ্যে নিজেদের বিমানের অভিমুখ ঘুরিয়ে দেন। ফলে রক্ষা পেয়েছে দুটি বিমানের শতাধিক যাত্রীর প্রাণ। কিন্তু কেন বিমান দুটি এত কাছাকাছি এসেছিল সে ব্যাপারে দুটি বিমান সংস্থার কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ। দুটি বিমান সংস্থাই ঘটনার কথা স্বীকার করেছে। এই ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে এয়ারক্র্যাফট অ্যাক্সিডেন্ট ইনভেস্টিগেশন ব্যুরো।তবে ঢাকার এটিসি দাবি করেছে, ভারত তাদের কাছ থেকে কোনও এটিসি রিপোর্ট চেয়ে পাঠায় নি।  



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অপরাধীদের শুধু শাস্তি নয় পুনর্বাসনও জরুরি

জাবিতে ‘মাদক পার্টিতে’ তুলকালাম

৩ শিশু ধর্ষিত

নাটোরে কাউন্সিলরকে কুপিয়ে হত্যা

চলতি মাসেই মামলা: অর্থমন্ত্রী

ওনারা ধান ভানতে শিবের গীত গাইছেন

ঐক্যফ্রন্টের বিজয়ীরা এককভাবে কি সংসদে যেতে পারবেন?

গণমাধ্যমের বিকাশ শেখ হাসিনার হাত ধরেই

আইন সংশোধন ছাড়া তৃতীয় লিঙ্গের কেউ এমপি হতে পারবেন না

শারীরিক জটিলতা বেড়েছে সিঙ্গাপুর গেলেন এরশাদ

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১

ওবায়দুল কাদেরের প্রশ্ন নিখুঁত নির্বাচন কোথায় হয়

হত্যার পরও মুক্তিপণ দাবি করছিল খুনিরা

জল্পনার জবাব দিলেন আরিফ

নতুন নৌপ্রধান আওরঙ্গজেব

ডিপিডিসি পরিচালকের ঢাকাতেই ৫ বাড়ি!