ব্যায়াম, ডায়েট তবু কমছে না ওজন, কিন্তু কেন?

শরীর ও মন

অনলাইন ডেস্ক | ২ মে ২০১৮, বুধবার
ওজন কমানোর জন্য প্রতি মুহূর্তে মাথার ঘাম পায়ে ফেলছেন। রোজ ভোরবেলা উঠে শরীরচর্চা থেকে শুরু করে ডায়েট মেনে খাবার খাওয়া, সবই করছেন। অথচ ওজন কমছে না কিছুতেই। তাই তো?
ওজন কমানো এত সহজ কাজ নয়। তার জন্য দরকার কঠিন পরিশ্রম, নিয়ম মেনে চলা, ডেডিকেশন, নিজের উপর সংযম। এ সব মেনে না চললে অনেক চেষ্টা করেও কিছুতেই ওজন কমাতে পারবেন না। সম্প্রতি গবেষকরা জানাচ্ছেন, ওজন কমানোর জন্য শুধু সঠিক ডায়েট মেনে খাবার খেলেই চলবে না। খাবার খেতে হবে ধীরে ধীরে।
তাড়াতাড়ি খাওয়া চলবে না একেবারেই।
ওজন কমানোর উপর জাপানের কিউসু বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সমীক্ষা চালানো হয়। যেখানে ৬০ হাজার মানুষের খাওয়ার ধরন, তাঁদের ওজন বাড়া-কমার দিকে নজর দেওয়া হয়। সমীক্ষায় ৬০ হাজার মানুষকে ২টি দলে ভাগ করে দেওয়া হয়। প্রথম দলের ব্যক্তিরা তাড়াতাড়ি খাবার খান। দ্বিতীয় দলের ব্যক্তিরা ধীরে ধীরে। সমীক্ষা শেষে দেখা যায়, যাঁরা খাবার ধীরে ধীরে খেয়েছিলেন, তাঁদের ওজন কমেছে, তাড়াতাড়ি খাবার খাওয়া লোকেদের তুলনায়। তাঁদের মধ্যে শুধু ওবেসিটির মাত্রাই কমে গিয়েছে, তাই নয়, শারীরিক অসুস্থতার মাত্রাও কমে গিয়েছে।
কিন্তু কেন হয় এমন?
চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, ধীরে ধীরে খাবার চিবিয়ে খেলে পাকস্থলী সঠিকভাবে কাজ করতে পারে। চিবিয়ে খাওয়ার সময়ে আমাদের শরীর থেকে অনেক উপকারী হরমোন নির্গত হয়। তাড়াতাড়ি গিলে খেলে যা সম্ভব হয় না। তাই ওজন কমাতে হলে শুধু ডায়েট মেনে খাবার খেলেই চলবে না, খেতে হবে ধীরে সুস্থে।
সুত্র: জি নিউজ



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি মামুন গ্রেপ্তার

‘ওয়েব সিরিজও টাকা দিয়েই দেখতে হয়’

বিএনপি নেতা কামালকে না পেয়ে ছেলেকে ধরে নিয়ে গেছে পুলিশ

বাংলাদেশে বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন নিশ্চিতে মার্কিন কংগ্রেসে রেজ্যুলেশন পাস

‘সরকার আর ১৫ দিন ক্ষমতায়, বেআইনি আদেশ মানবেন না’

ড. কামাল হোসেনের গাড়িবহরে হামলা

খামোশ বললেই জনগণ খামোশ হবে না

সিইসির নির্দেশিত তদন্ত ফল প্রকাশ পাবে কি?

চলে গেলেন আমজাদ হোসেন

সিলেটে রচিত হলো ইতিহাস

কুমিল্লা কারাগারে অনশনে মনিরুল হক চৌধুরী

সারা দেশে ধরপাকড় অব্যাহত

রাখাইনে সেনা অভিযানকে গণহত্যা আখ্যা দিলো মার্কিন কংগ্রেস

নির্বাচন ঘনিয়ে আসায় বেড়েছে দমনপীড়ন

পাবনায় চলন্ত ট্রেনের ছাদ থেকে পড়ে নিহত ৩

শ্রদ্ধা ভালোবাসায় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ