ভারত বাংলাদেশের সব দলকে স্বাগত জানায় - হাইকমিশনার

শেষের পাতা

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ২৫ এপ্রিল ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:২৬
পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে বৈঠকের পর ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, বাংলাদেশের যেকোনো রাজনৈতিক দল ভারত সফর করতে পারে। তাদের অবশ্যই স্বাগত জানানো হবে। আওয়ামী লীগ প্রতিনিধি দলের সদ্য সমাপ্ত দিল্লি সফরের পর বিএনপি ভারত সফরে আগ্রহী। এমন প্রেক্ষাপটে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে গতকাল হাইকমিশনার এসব কথা বলেন। আওয়ামী  লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বাধীন দলটির জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের দিল্লি সফরটি একান্তই পার্টি লেভেল, এর সঙ্গে সরকারের কোনো সম্পর্ক নেই জানিয়ে হাইকমিশনার বলেন, তবে এ সফরে ভালো মতবিনিময় হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে তাদের দেখা হয়েছে।
ভারতীয় মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, রাজনৈতিক দলের নেতৃত্বের সঙ্গে তাদের কথা হয়েছে। বিজেপির সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এমজে আকবর প্রতিনিধি দলটির সম্মানে সোমবার সন্ধ্যায় একটি নৈশভোজ আয়োজন করেছিলেন। সেখানেও অনেকের সঙ্গে তাদের দেখা-সাক্ষাৎ কথাবার্তা হয়েছে। সব মিলে দলীয় পর্যায়ে পারস্পরিক বুঝাপড়ায় সফরটি ভালো হয়েছে। এবার বিএনপি দিল্লি সফরে আগ্রহী, তাদেরকেও একইভাবে স্বাগত জানানো হবে কি-না? এমন প্রশ্নে হাইকমিশনার পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়েন। বলেন, তারা কি বলেছে তাদের স্বাগত জানানো হবে না? হাইকমিশনার রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ভারতের ইনসানিয়াত কর্মসূচির আওতায় প্রদত্ত ত্রাণ সামগ্রী আগামী মে মাসে পৌঁছাচ্ছে বলে জানান। রোহিঙ্গা ত্রাণসহ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের বিভিন্ন বিষয়ে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হকের সঙ্গে তার আলোচনা হয়েছে জানিয়ে হাইকমিশনার বলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য দ্বিতীয় ধাপে বাংলাদেশকে সাহায্য করতে বিপুল পরিমাণ ত্রাণসামগ্রী পাঠাচ্ছে ভারত। আসন্ন বর্ষার কথা চিন্তা করে শুকনো খাবার, কেরোসিন স্টোপ, শুঁটকি, গামবুটসহ বিভিন্ন জিনিস পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শিশু খাদ্যও সেখানে রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এগুলো প্যাক হয়ে গেছে। এখন শুধু পৌঁছানো বাকি। এ সময় এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের জন্য ভারতের পক্ষ থেকে মেডিক্যাল ক্যাম্প হবে। তবে এতে হয়ত একটু সময় লাগবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচনের আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর নিয়ে গণমাধ্যমে রিপোর্ট সঠিক নয় বলে উড়িয়ে দেন হাইকমিশনার। অবশ্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের বাংলাদেশ সফর বিষয়ে ইতিবাচক ইঙ্গিত দেন। বলেন, বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাকে ঢাকা সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। প্রায় দুই বছরে আগে তিনি ভারত সফর করেছিলেন। তার সফরের ফিরতি হিসাবে এ সফরের আমন্ত্রণ গেছে। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক বা নিরাপত্তা ইস্যুতে দুই দেশের আলোচনার অনেক ম্যাকানিজম রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, মন্ত্রী সচিব পর্যায়ে আলোচনার ফোরাম রয়েছে। বিএসএফ লেভেলে আলোচনা হয়। বর্তমানে বিএসএফ মহাপরিচালক ঢাকায় রয়েছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন জানিয়ে ভারতীয় দূত বলেন, কূটনৈতিক চ্যানেলে এখন সেই সফরের তারিখ চূড়ান্ত হবে। এ নিয়ে কাজ চলছে। দেখা যাক কি হয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

গাজীপুরে খুলনার মতো নির্বাচন করতে পারবে না: মোশাররফ

বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন করলেন হাসিনা ও মোদি

বৈঠকে বসছে ইরান চুক্তির অংশীদাররা

সীমান্তে ‘অবৈধ বাংলাদেশী’ ঠেকাবে উলফা: অনুপ চেটিয়া

শান্তিনিকেতনের আম্রকুঞ্জে ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী হাসিনা-মোদি-মমতা

কানাডার রেস্তোরাঁয় বিস্ফোরণ, আহত ১৫

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যে কোন সময় আলোচনায় বসতে রাজি উত্তর কোরিয়া

সারাদেশে বন্দুকযুদ্ধে নিহত আরো ৮

‘সবাই জানে আমার বয়ফ্রেন্ড আছে’

বৃটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বোকা বানালেন ‘ভুয়া কলার’

মমতা শনিবার একান্তে বৈঠক করবেন হাসিনার সঙ্গে

দোলাচলে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

সিটি নির্বাচনে প্রচারণার সুযোগ এমপিদের

আমি যদি প্রধানমন্ত্রী হতাম

পুলিশ কি ওখানে জুঁই ফুলের গান গাইবে?

‘বন্দুকযুদ্ধে’ মৃতের সংখ্যা অর্ধশতাধিক