ভারতে শিশু ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদন্ড

বিশ্বজমিন

কলকাতা প্রতিনিধি | ২২ এপ্রিল ২০১৮, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৫৭
ভারতে শিশু ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদন্ড। শনিবার এ শাস্তির বিষয়ে মন্ত্রীপরিষদ বিল পাস করার পর প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোভিন্দ এই অর্ডিন্যান্সে স্বাক্ষর করেছেন রোববার। ফলে এ শাস্তি আজ রোববার থেকেই কার্যকর হবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ। এতে বলা হয়েছে, যদি ১২ বছর বয়স পর্যন্ত কোনো শিশুকে কেউ ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত হয় তাহলে এ অর্ডিন্যান্সের অধীনে তাকে দেয়া হবে মৃত্যুদ-। এ বিধান কার্যকর হবে রোববার থেকেই। শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে মন্ত্রীপরিষদের এক বৈঠক বসে। সেই বৈঠকে এই অর্ডিন্যান্স পাস হয়।
যদি ১৬ বছরের নিচে বয়সের কোনো বালিকাকে ধর্ষণের জন্য কেউ দোষী সাব্যস্ত হয় তাহলে তার সর্বনি¤œ শাস্তি ১০ বছর থেকে বাড়িয়ে ২০ বছর করার কথা বলা হয়েছে। যা বর্ধিত করে যাবজ্জীবন কারাদন্ডে পরিণত করা যাবে। ১২ বছর বয়সের নিচের কোনো বালিকাকে ধর্ষণে অভিযুক্ত হলে ধর্ষকের সর্বনি¤œ জেল ২০ বছর করার কথা বলা হয়েছে ওই অর্ডিন্যান্সো। এ ছাড়া তদন্ত ও বিচার প্রক্রিয়া দ্রুতগতিতে করার তাগিদ দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি একটি ধর্ষণ মামলা নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। তার পরেই এমন অর্ডিন্যান্স জারি হলো ভারতে। এর আগে যৌন সহিংসতা থেকে শিশুকে সুরক্ষা বিষয়ক আইনের অধীনে একজন ধর্ষক বা যৌন নিপীড়নকারীর সর্বোচ্চ শাস্তি ছিল যাবজ্জীবন কারাদন্ড। আর সর্বনি¤œ শাস্তি ছিল ৭ বছরের জেল। এসব আইন পরিবর্তনের কথা শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টকে অবহিত করে ভারত সরকার। তারা জানায়, ধর্ষণ সংক্রান্ত আইন সংশোধন করতে যাচ্ছে সরকার। তাতে ধর্ষকের জন্য মৃত্যুদ- রাখা হচ্ছে। ওদিকে ২০১২ সালের ডিসেম্বরে নয়া দিল্লিতে নির্ভয়া ধর্ষণ ঘটনার পর ধর্ষণ সংক্রান্ত ফৌজদারি আইনকে সংশোধন করা হয়। জম্মু-কাশ্মীরের কাঠুয়াকান্ডের পরই ধর্ষণের শাস্তির ক্ষেত্রে আইনের বদল আনার জন্য গত সপ্তাহেই প্রস্তাব রেখেছিলেন কেন্দ্রীয় মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী মানেকা গান্ধী। এ দিনের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে শিশু ধর্ষণের চূড়ান্ত শাস্তি কী হতে পারে তা নিয়ে বিস্তর আলোচনা হয়। শেষমেশ, মৃত্যুদন্ডতেই সিলমোহর দিয়ে দেয় মন্ত্রিসভা। অর্ডিন্যান্সটি রোববার প্রেসিডেন্ট অনুমোদন করেছেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

একজন গিটার যাদুকর

অপারেশন গর্ডিয়ান নট-এ নিহত জঙ্গী মোস্তাফার বাড়ি ঝিনাইদহে

ফারাক্কা ব্যারেজের লকগেট ভেঙে বিপত্তি

‘ডাবিং করতে গিয়ে বেশ ভয় পেয়েছিলাম’

আন্দোলন ও নির্বাচন ২ প্রস্তুতিতেই বিএনপি

মি-টু আন্দোলনের মুখে এম জে আকবরের পদত্যাগ

নীতিমালা নেই অ্যাপস চালুর চিন্তা

সিলেট, চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে সমাবেশের তারিখ চূড়ান্ত করেছে ঐক্যফ্রন্ট

দুই উইকেট পড়ে গেছে আরো পড়বে

সক্ষমতা সূচকে পেছালো বাংলাদেশ

দুর্গাপূজায় সেই নাসিরনগর

কারাগারে থেকেই দুই পুরস্কার

গ ইউনিটে ফেল ঘ ইউনিটে প্রথম!

বিএনপি’র ভরসা ভোটার আওয়ামী লীগের উন্নয়ন

জিপ্লেক্স’র মাধ্যমে আরো উন্নত কন্টাক্ট সেন্টার গড়লো রবি

চ্যারিটেবলের রায় আগে লেখা হয়েছে: নজরুল