ভুয়া ঋণ জালিয়াতি

ওরিয়েন্টাল ব্যাংকের ৫ কর্মকর্তার ৬৮ বছর কারাদণ্ড

অনলাইন

আদালত রিপোর্টার | ১৭ এপ্রিল ২০১৮, মঙ্গলবার, ৬:২৪
ভুয়া ঋণ জালিয়াতির চারটি মামলায় ওরিয়েন্টাল ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. আবুল কাশেম মাহমুদুল্লাহসহ ৫ কর্মকর্তার প্রত্যেককে ৬৮ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড- দিয়েছেন আদালত। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. মো.আখতারুজ্জামান আজ মঙ্গলবার এ দণ্ডাদেশ প্রদান করেন। একইসঙ্গে আসামিদেরকে ৪ কোটি ২ লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। এর মধ্যে ৪ কোটি রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এছাড়াও অন্য দুইটি মামলায় দুইজনকে ১৭ করে কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা জামিনে পলাতক রয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

৬৮ বছর করে কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, ওরিয়েন্টাল ব্যাংকের প্রিন্সিপাল শাখার সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শাহ মো. হারুন, সাবেক সিনিয়র অ্যাসিস্টেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. আবুল কাশেম মোহাম্মদউল্লাহ, সাবেক এস ই ভি পি মাহমুদা হোসেন, সাবেক ই ভি পি কামরুল ইসলাম এবং সাবেক উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ফজলুর রহমান। এ মামলায় ব্যাংকের সাবেক উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ইমামুল হককে খালাস প্রদান করেন আদালত।
মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, আসামিরা নিজে লাভবান হওয়ার জন্য পরস্পর যোগসাজসে ভুয়া ঋণপত্রের মাধ্যমে ৪ কোটি টাকা ঋণ প্রদান করেন।
এ ঘটনায় গেল ২০০৬ সালে আসামিদের বিরুদ্ধে দুদক পৃথক ৪টি মামলা করা হয়। ২০১৩ সালে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। আদালত সাক্ষ্য প্রমাণ গ্রহণ করে এ দণ্ডাদেশ প্রদান করেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিমানবন্দরে আত্মহত্যার চেষ্টা করা রুনা বললেন আমি মরতে চাই

দুর্নীতিবাজদের নিয়ে জোট করে সরকার উৎখাতের চেষ্টা হচ্ছে

সহস্রাধিক সাইট পেজে নজরদারি

সাধারণের ভোট ভাবনা

মেজর (অব.) মান্নানকে দুদকে তলব

ডিজিটাল আইন স্বাধীন সাংবাদিকতার অন্তরায়

২৯শে সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের নাগরিক সমাবেশ

ঢাকায় বৃহস্পতিবার বিএনপি’র সমাবেশ

জগাখিচুড়ির ঐক্য টিকবে না

৫৭ ধারার মামলায় চবি শিক্ষক কারাগারে

পদ্মার ডান তীরে ভাঙন ফের আতঙ্ক

মালদ্বীপে বিরোধীদের অভাবনীয় জয়

চট্টগ্রামে গণধর্ষণের শিকার দুই কিশোরী

বিচারকের প্রতি দুই আসামির অনাস্থা

ভালো মানুষকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন: প্রেসিডেন্ট

শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাওয়ার কথা বলেননি ড. কামাল