সরকারের কাছে সকলেই অসহায়- ব্যারিস্টার মইনুল

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ এপ্রিল ২০১৮, সোমবার
সরকারের চটকদার প্রচারণায় প্রতিনিয়ত সাধারণ মানুষ ধোঁকাবাজির শিকার হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। তিনি বলেছেন, এখন তাদের (সরকার) কাছে সকলেই অসহায়। বিচারপতিরাও অসহায়। খুবই কষ্টে আছেন তারা। দেশে স্বৈরশাসন চলছে অথচ পুলিশবাহিনী, সেনাবাহিনী, বীর মুক্তিযোদ্ধারা কোনো কথা বলে না। আদর্শ নাগরিক আন্দোলনের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় প্রয়োজন ‘জাতীয় ঐক্য’: আগামী নির্বাচন কোন পথে?‘ শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, যখন যে দল ক্ষমতায় থাকে তাদের কাছ থেকে সুযোগ-সুবিধা নেয়ার জন্য কেউ যুদ্ধ করিনি। গণতান্ত্রিক দেশকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য সেদিন যারা যুদ্ধ করেছিলেন, তারা যখন নীরব থাকেন তখন সাধারণ মানুষের নীরবকান্না ছাড়া আর কিছুই করার নেই। বীরমুক্তিযোদ্ধারা এখন ভুলেই গেছেন তারা মুক্তিযুদ্ধ করেছেন। তিনি বলেন, সাংবাদিক ও আইনজীবীরা এখন দলীয় কর্মীর মতো আচরণ করছেন। সাধারণ মানুষের পক্ষে লেখার কেউ নেই। এখন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, শেরেবাংলা, মওলানা ভাসানীর মতো নেতার অভাব। দেশের এই ভয়াবহ অবস্থা থেকে মুক্তির জন্য সবাইকে একসঙ্গে জেগে উঠতে হবে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই না, ন্যায়বিচার চাই। ন্যায়বিচার পেলে তিনি অবশ্যই মুক্তি পাবেন। জাতীয় ঐক্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আগে যারা জাতীয় ঐক্যের কথা বলছেন তাদেরকে স্পষ্ট করতে হবে তারা যদি ক্ষমতায় যায় কী কী করবেন। দেশে গুম-খুন দেখতে চাই না। চাই গণতান্ত্রিক একটি সুন্দর বাংলাদেশ। যেই বাংলাদেশে সবাই তার অধিকার সমানভাবে ভোগ করবে। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, জীবনে এত খারাপ ও ভয়ঙ্কর সরকার দেখিনি। এই সরকার সবকিছুই করতে পারে। নিজেদের ক্ষমতায় রাখার জন্য আরো অনেক কিছুই অপেক্ষা করছে। যা কেউ চিন্তাও করতে পারছি না। জাতীয় ঐক্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গণতন্ত্রের স্বার্থে আমি বিএনপির সঙ্গে ঐক্য করতে প্রস্তুত। কিন্তু শর্ত আছে। প্রথম শর্ত বিচার বিভাগের সর্ম্পূণ স্বাধীনতা দিতে হবে। প্রতিহিংসার রাজনীতি করা যাবে না। দেশে গুম-খুনের রাজনীতি করা যাবে না। সবাইকে গণতান্ত্রিক অধিকার দিতে হবে। এইটুকুু করলেই যেকোনো ঐক্যের সঙ্গে যেতে প্রস্তুত আছি। আদর্শ নাগরিক আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে বৈঠকে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ আরো অনেকেই বক্তব্য দেন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সোনা কারসাজির নিরপেক্ষ তদন্ত চায় ফিনল্যান্ড বিএনপি

চবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মানবন্ধনেও ছাত্রলীগের হামলা!

রিমান্ডে আসাদ পংপং

ছোট বড় সকল নির্বাচনে স্বচ্ছতা দেখতে চায় ইইউ

ঢাকায় সর্বোচ্চ গরম

দেশের বাইরে পাসের হার ৯২ দশমিক ২৮ শতাংশ

জাবিতে ১৯ বিভাগের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে মানববন্ধন

আবারও বড় ঋণ কেলেঙ্কারিতে জনতা ব্যাংক

বিবি’র ওপর ‘আস্থা’ রাখুন!

হুমায়ূন আহমেদের শেষের দিনগুলো

দিনাজপুরে ছেলেরা পিছিয়ে

আরিফকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন সেলিম

যশোর বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বললেন বিপর্যয় নয়, কম পাস

ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন ২০ থেকে ২৬ জুলাই

গতানুগতিক পড়ালেখায় ভাল ফল সম্ভব নয়

পাকিস্তানের নির্বাচনে দৃষ্টি সেনাবাহিনীর!