রথীশ চন্দ্র হত্যা মামলার আসামির মৃত্যু

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক: | ১৪ এপ্রিল ২০১৮, শনিবার, ২:৩০ | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫৫
রংপুরের আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিক হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত তার ব্যক্তিগত সহকারী মিলন মোহন্ত (৩০) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। কারাগারে আনার পরে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় মিলনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।
রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের সূত্রে জানা যায়, রথীশ চন্দ্র ভৌমিক হত্যা মামলায় গত ৫ই এপ্রিল মিলনকে কারাগারে নেয়া হলে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। গতকাল শুক্রবার রাত ৮টার দিকে তার বুকে ব্যাথা শুরু হয়। চিকিৎসকরা ধারণা করছেন হার্ট অ্যাটাকে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের পর তার মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতভাবে জানা যাবে।
প্রসঙ্গত, গত ৩০শে মার্চ যুদ্ধাপরাধ মামলার সাক্ষী আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিক নিখোঁজ হন।
নিখোজের দুইদিন পর তার ছোটভাই সুবল ভৌমিক অজ্ঞাতপরিচয় আসামির বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। এ মামলায় এখনও পর্যন্ত রথীশের স্ত্রী দীপা ভৌমিক, দীপার সহকর্মী শিক্ষক কামরুল, তাদের দুই ছাত্র ও রথীশের ব্যক্তিগত সহকারী মিলনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Rabindra Nath Baral

২০১৮-০৪-১৬ ১৭:৩৫:৪৭

জিজ্ঞাসাবাদের নামে তার উপর মাত্রাতিরিক্ত টর্চার চালানো হতে পারে মৃত্যুর কারন।

Mohammed

২০১৮-০৪-১৪ ১৯:০৬:২৩

প্রকৃত হত্তার ঘটনা লুকানোর জন্য ত নয়?

আপনার মতামত দিন

প্রেস থেকে বিএনপি প্রার্থীর পোস্টার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

প্রতিটি ভোটই মূল্যবান

গুগল টপ সার্চলিস্টে বাংলাদেশিদের মধ্যে শীর্ষে খালেদা জিয়া

৩০ নির্বাচনী এলাকায় বাধা, হামলা, সংঘাত

তৃতীয় বেঞ্চের প্রতি খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের অনাস্থা

২৪শে ডিসেম্বর থেকে মাঠে থাকবে সেনাবাহিনী

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ

রব-মান্নাকে বাধা

আওয়ামী লীগ ১৬৮-২২০ আসনে জয়ী হবে

ধরপাকড় অব্যাহত মিলন গ্রেপ্তার

নির্বাচন গ্রহণযোগ্য না হলে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে

সন্ত্রাসের মাধ্যমে অধিকার কেড়ে নিচ্ছে সরকার

শরিকদের প্রার্থী রেখে দেয়া আওয়ামী লীগের কৌশল

এক মার্কিন কংগ্রেসম্যান ও অস্ট্রেলিয়ান সিনেটরের চাওয়া

এরশাদ বিদেশে, প্রস্তুতিতে পার্থ, মাঠে ফারুক

জবাবদিহিতার কথা মাথায় রেখে কাজ করার নির্দেশ