সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের হামলা

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ১৪ এপ্রিল ২০১৮, শনিবার, ১২:৫০ | সর্বশেষ আপডেট: ১:১৮
সিরিয়ায় সরকার বিরোধীদের উপর রাসায়নিক হামলার দায়ে সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকার বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স। পূর্ব ঘৌটায় সরকার বিরোধীদের উপর রাসায়নিক হামলার দায়ে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রা¤প শনিবার প্রথম প্রহরে মার্কিন বাহিনীকে  হামলা শুরুর আদেশ দেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স।
রাসায়নিক হামলা বন্ধ না করা হলে দেশটির উপর হামলার হুঁশিয়ারি আগে থেকেই দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রা¤প। এবার হামলা শুরুর পর তিনি জানিয়েছেন বাসার আল আসাদ রাসায়নিক হামলা বন্ধ না করা পর্যন্ত মার্কিন বাহিনীর এ হামলা অব্যাহত থাকবে। আর এর সঙ্গে সহমত প্রকাশ করেছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এবং ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁও।
তবে সিরিয়ার গণমাধ্যম এ হামলাকে আন্তর্জাতিক আইনের চরম লঙ্ঘন আখ্যা দিয়ে এ হামলা ব্যর্থ হয়েছে বলে জানিয়েছে। এদিকে সিরিয়ায় তিন যৌথ বাহিনীর এ হামলার কারণ হিসেবে পশ্চিমা গণমাধ্যমকে দোষারোপ করছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা।
সিরিয়াতে যখন শান্তির সূচনা হচ্ছিল ঠিক এমন সময়ে যৌথ বাহিনী এমন হামলা চালনা করলো বলেও জানিয়েছেন তিনি।
প্রসঙ্গত, গত সাত বছর ধরে সিরিয়াতে গৃহযুদ্ধ চলমান রয়েছে। আর সরকার বিরোধীদের দমনে তাদের সহায়তা করছিল মিত্র রাষ্ট্র রাশিয়া।

[পিসি]

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সিটি নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধ প্রচারণা চালাবে ২০ দল

কমনওয়েলথ সম্মেলনে যোগ দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে বৈঠক

স্থানীয় নির্বাচনে মন্ত্রী এমপিদের প্রচারণার সুযোগ দিতে বিধি সংশোধন হচ্ছে

তারেককে ফিরিয়ে আনার আলোচনা ধোঁকাবাজি: খসরু

খালেদার সঙ্গে দেখা করতে পারলেন না বিএনপির তিন নেতা

ডিজিটাল আইনের ৬টি ধারা নিয়ে সম্পাদক পরিষদের আপত্তি

র‌্যাফেল ড্রয়ে পুরস্কার নারী মডেল

সুফিয়া কামাল হলে প্রতিবাদকারীরাই এখন আতঙ্কে

বড় পরিবর্তনে ইসলামী ব্যাংকে অস্থিরতা

লন্ডনে আরিফ খান জয় লাঞ্ছিত

গ্রেপ্তার: উপেক্ষিত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা

এবার কোচিং সেন্টারের মালিককে পেটালেন রনি

বাংলাদেশ ব্যাংক ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারছে না

বিএনপির রিজার্ভ আসন স্বপ্ন দেখছে আওয়ামী লীগও

ফেসবুক লাইভে যুবকের আত্মহত্যা

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব নিয়ে ভাবছে বিইআরসি