প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা

‘উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ জনগণের অর্জন’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ মার্চ ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ২:৫৬
ফাইল ছবি
‘স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে বাংলাদেশের উত্তরণ সাধারণ মানুষের অর্জন। দেশকে তারাই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। সরকার শুধু পথপ্রদর্শকের ভূমিকা পালন করছে।’ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে উত্তরণ হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে এ সংবর্ধনা দেয়ার আয়োজন করা হয়। বক্তব্যের এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী তার বাবা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, ‘আজ নিশ্চয় তার (বঙ্গবন্ধু) আত্মা শান্তি পাবে।’
উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃতি অর্জনের মাধ্যমে জাতির পিতার স্বপ্নপূরণে বাংলাদেশ আরও একধাপ এগিয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নিজের জন্য নয়, জনগণের ভাগ্যের উন্নয়নই আমার রাজনীতি।’
প্রধানমন্ত্রী সরকারের নানা সফলতা ও উন্নয়ন পরিকল্পনাগুলোর নানা দিক তুলে ধরেন। তিনি বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে আজ স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়া সম্ভব হয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ করার অঙ্গীকার প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি।
বিদ্যুতের উন্নতির জন্য সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলাম বেসরকারি খাতকে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই উৎসব ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শুরুতেই উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতিপত্র প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এর পর উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি প্রাপ্তিতে ডাকটিকিট, ৭০ টাকার স্মারক মুদ্রা এবং উন্নয়ন আলোকচিত্র অ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীকে প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান প্রেসিডেন্ট কার্যালয়ের সামরিক সচিব। এরপর স্পিকারের পক্ষে আবদুর রাজ্জাক, মাহবুব আরা গিনি ও রফিকুল ইসলাম; প্রধান বিচারপতির পক্ষে রেজিস্ট্রার জেনারেল গোলাম রব্বানী এবং মন্ত্রিসভার পক্ষে অর্থ, পররাষ্ট্র ও পরিকল্পনামন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান। আরো শুভেচ্ছা জানান বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। শুভেচ্ছা জানানো হয় ১৪ দল, মন্ত্রিপরিষদের পক্ষে। এছাড়া, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী ও নৌবাহিনীর প্রধানগণ শ্রদ্ধা জানান। শ্রদ্ধা জানানো হয় পুলিশের পক্ষ থেকে।

সংবর্ধনায় ভিডিওবার্তায় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেস, বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ও এডিবির প্রধান।

এরপর বিভিন্ন ব্যক্তি, ব্যবসায়ী, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক, আইনজীবী, কবি-সাহিত্যিক, খেলোয়াড় এবং শিল্পী সমাজের পক্ষ হতে শুভেচ্ছা জানানো হয় প্রধানমন্ত্রীকে।

উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উদযাপনে বিকাল ৩টায় রাজধানীজুড়ে বের হবে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Sk.lokman.hossain

২০১৮-০৩-২২ ০৬:৫৯:১৩

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে বাংলাদেশের উওরন এর অবদান সবচেয়ে বেশি রহিয়াছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের। তাই বর্তমান সরকারকে ধন্যবাদ।

আপনার মতামত দিন

পাচার হওয়া নারী নিজেই যেভাবে হয়ে গেলেন পাচারকারী

নিরাপত্তার অভাবে এলাকা ছাড়লেন রেজা কিবরিয়া

হামলার বিচার চেয়ে লতিফ সিদ্দিকীর অবস্থান

নির্বাচনের আগে চারটি জনসভা করবেন শেখ হাসিনা

ভারতীয় নেতারা বিজয় দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের স্বীকৃতি দেননি

নির্বাচন না হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে

অভিযোগের প্রতিকার নেই ইসিতে

নির্বাচনে বলপ্রয়োগ গ্রহণযোগ্য হবে না

পরিস্থিতি নো ইলেকশনের দিকেই যাচ্ছে

হাসিনা না খালেদা ভারতের উভয় সংকট

ঐক্যফ্রন্টের শোভাযাত্রায় জনতার ঢল

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার আজ

নির্বাচনকে সামনে রেখে ভারত থেকে আসছে অস্ত্র

ভারতীয় নেতারা বিজয় দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের স্বীকৃতি দেন নি

বিজয় দিবসে দেশ গড়ার দৃপ্ত শপথ

সাতক্ষীরায় ধানের শীষ প্রার্থী নজরুল গ্রেপ্তার