সরকারের আজকের কর্মসূচি বিকৃত তামাশা: রিজভী

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ মার্চ ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১:১৭
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ায় সরকারের আজকের কর্মসূচি এক বিকৃত তামাশা। সকালে দলের নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। রিজভী বলেন, সরকারের আজকের কর্মসূচির কারণে গোটা ঢাকা শহরের রাস্তাঘাট অচল হয়ে গেছে। জনজীবন হয়ে গেছে সম্পূর্ণভাবে স্থবির। ঘণ্টার পর ঘণ্টা মানুষ রাস্তায় আটকা পড়ে আছে। সরকার বলছে-জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয় এমন কোন কর্মসূচি করতে দেয়া হবে না।
অথচ উল্টো সরকারই জনদুর্ভোগ সৃষ্টিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। সত্যিই আমরা আজব দেশে বাস করছি যা শামসুর রহমানের একটি কবিতা মনে পড়লো-আজব দেশের ধন্য রাজা, দেশজোড়া তার নাম, বসলে বলে হাটরে তোরা, চললে বলেন-থাম, থাম, থাম, থাম। সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আবারও ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো প্রহসনের নির্বাচন করা সম্ভব হবে না ভেবেই বর্তমান শাসকগোষ্ঠী এখন সবকিছুতেই বেপরোয়া হয়ে পড়েছে। তারা একটা গভীর ও সুদূরপ্রসারী নীল নকশা বাস্তবায়নে দ্রুততার সাথে পা ফেলছে। কিন্তু সরকারের উদ্দেশ্যে বলতে চাই-আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন দলনিরপেক্ষ সরকারের অধীনে করতে আপনারা বাধ্য হবেন। আপনাদের সকল চক্রান্ত ও নীল নকশা জনগণের সম্মিলিত শক্তির মাধ্যমে প্রতিহত করা হবে। বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ষড়যন্ত্রমুলকভাবে কারাবন্দী রেখে বিএনপিবিহীন নির্বাচন করার খায়েশ কখনোই পূরণ করতে পারবেন না। খালেদা জিয়াকে ছাড়া দেশে কোন নির্বাচনই অনুষ্ঠিত হবে না। তিনি বলেন, মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা সাবেক প্রেসিডেন্ট শহীদ জিয়াউর রহমান বীর উত্তম- এর নাম মুছে ফেলার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার। যে উদ্দেশ্যে জিয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নাম পরিবর্তনসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠান থেকে তার নামফলক, ম্যুরাল ভেঙ্গে ফেলা এবং ক্যান্টনমেন্টের বাড়ি থেকে বেগম জিয়াকে উৎখাত করা হয়েছে। আর এখন জিয়া শিশু পার্কের নামও মুছে ফেলার চক্রান্ত হচ্ছে বলে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। অন্যের অর্জনকে যারা আত্মসাৎ করে তারাই হচ্ছে ডাকাত, তারাই হচ্ছে দখলদার। আর আওয়ামী লীগের স্বভাবধর্মই সন্ত্রাসের বাতাবরণে অন্যের সম্পদ আত্মসাৎ করা। অন্যায় আর পাপের সাগরে ডুবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনি কী ভেবেছেন চিরদিন রাষ্ট্রক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখবেন ? আপনার অবৈধ ক্ষমতার মখমলের চেয়ারের চার পায়ে যে উইপোকা ধরেছে সেটি আপনি টের পাচ্ছেন না। পতন কিন্তু বলে কয়ে আসে না। উত্তরের কালবৈশাখী ঝড়ের মতো কখন যে সেই গদি উল্টে যাবে তা অনুধাবন করতে পারছেন না। সরকার শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলার ঘৃণ্য উদ্যোগ নিলেও জাতির হৃদয় থেকে মহান স্বাধীনতার ঘোষক জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলা যাবে না। তিনি আছেন থাকবেন যুগযুগ ধরে কোটি কোটি মানুষের অন্তরে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Nazrul Islam

২০১৮-০৩-২৩ ০০:০৮:৩৪

লক্ষ লক্ষ বেকার , মধ্যবিত্ত নিম্নবিও হয়ে যাওয়া , শিক্ষার মান নিম্নগামী , আর্থিক প্রিতিষ্ঠানে লুটপাট ডাকাতি , খুন ধর্ষন আর নারী- নির্যাতনের উৎসব ৷ সবকিছু মিলিয়ে দমবন্ধ অবস্থায় উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদার খবর কি সত্যি ? আসল খবরটা কি? অন্য দেশে কি এরকম উৎসব হয়েছে ? এতক্ষন সবাই জেনেছন ? আরো জানুন, নিজেকে প্রশ্ন করুন ৷ এরাই আমাদের শাসক থাকবেন না " সাম্য ,সামাজিক ন্যায় বিচার ও মানবিক বাংলাদেশ গড়ার সংগ্রামে " নিজেকে যুক্ত করবেন !

রাহমান

২০১৮-০৩-২২ ০১:০৩:২২

স্যার,আমি আপনার বক্তব্য কে দত্ত কন্ঠে সমর্থন করি।আপনাকে ধন্যবাদ

আপনার মতামত দিন

র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত-১

ভিডিও ফাঁস করায় প্রেমিকের গোপনাঙ্গ কর্তন

বরেণ্য কবি বেলাল চৌধুরী আর নেই

অসম প্রেম, তবে যৌন জীবন মধুময়

ভিডিও কনফারেন্সে যৌন নির্যাতনের বর্ণনা দিলেন বাংলাদেশী যুবতী

পতেঙ্গা-ইপিজেড সড়কে ট্রাফিকের চলছে অবৈধ যান

গার্মেন্ট শিল্পে এখনও শ্রমিকদের কণ্ঠরোধ

চীনে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৮

সিলেটে ৫ দশমিক ২ মাত্রার ভূমিকম্পন অনুভূত

তিস্তা নিয়ে মমতার সঙ্গে বৈঠকে বসবে আওয়ামী লীগ

নিহত শ্রমিকদের স্মরণ

ইনটেনসিভ কেয়ারে সিনিয়র বুশ

‘কাজের শিল্পীর চাইতে আমাদের বক্তব্যনির্ভর শিল্পীর সংখ্যা বেশি’

দাফনের আগে নড়ে ওঠা নবজাতকটি আর নেই

কানাডায় ফুটপাতের ওপর ভ্যান উঠিয়ে ১০ জনকে হত্যা

রুয়েটের বাস চালককে কুপিয়ে হত্যা