রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

ল্যাব স্থাপনের দাবিতে আন্দোলন

শিক্ষাঙ্গন

রাঙামাটি প্রতিনিধি | ২১ মার্চ ২০১৮, বুধবার
বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের দুইটি বছর অতিক্রান্ত হয়ে গেলেও ল্যাব কোর্সের সুযোগ পায়নি রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বারংবার আশ্বাস প্রদান করেও এখনো পর্যন্ত রাবিপ্রবি কর্তৃপক্ষ তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন না করায় আজ সকালে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তাদের শ্রেণীকক্ষে তালা লাগিয়ে দিয়েছে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানিয়েছে, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত শ্রেণীকক্ষে অনির্দিষ্ট কালের জন্যে তালা লাগানো থাকবে। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রতি সেমিস্টারে কমপক্ষে তিনটি করে ল্যাব কোর্স থাকে। প্রতি সেমিস্টারে ল্যাব এর জন্যে নির্ধারিত ফি পর্যন্ত আদায় করে রাবি-প্রবি কর্তৃপক্ষ। কিন্তু দীর্ঘ দুই বছরেও কর্তৃপক্ষ কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করেনি।
ফলে প্রথম-দ্বিতীয় ও তৃতীয় ব্যাচের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী কম্পিউটার ল্যাবে একটি ক্লাসও করতে পারেনি। শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে একের এক আবেদন করা হলেও এর কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি কর্তৃপক্ষ। চলতি মাসের প্রথমদিনে রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করে এক সপ্তাহের সময় বেঁধে দিয়েছিলো ১ম, ২য় ও তৃতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। এই স্মারকলিপির আলোকে বিভাগীয় প্রধান জুয়েল শিকদার লিখিতভাবেই শিক্ষার্থীদের জানিয়েছিলেন, তিনি এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছেন। চলতি মাসের ২০ তারিখের মধ্যে ল্যাব স্থাপন দৃশ্যমান দেখা যাবে। এতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ২০ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকে। কিন্তু ২০ তারিখ গত হলে কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় ক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তাদের শ্রেণীকক্ষে অনির্দিষ্ট কালের জন্যে তালা ঝুলিয়ে দেয়।
এদিকে বিষয়টি জানতে সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রধান জুয়েল শিকদারের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। অপরদিকে রাবিপ্রবি’র রেজিস্টার অঞ্জন কুমার চাকমার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি তালা মারার বিষয়টি স্বীকার করেন এবং বিস্তারিত কিছু বলেননি। রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমার মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও রিসিভ করেননি।
এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, গত বছরের ৩রা নভেম্বর রাঙামাটি সফরে এসে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান রাবিপ্রবি’র প্রাতিষ্ঠানিক সমস্যা বিশেষ করে ল্যাবসহ আনুসঙ্গিক জিনিসপত্র ক্রয়ে আর্থিক ফান্ডের কোনো সমস্যা নেই। তাদের হাতে অর্থ রয়েছে। চেয়ারম্যানের এই আশ্বাসের পরেও অগ্রগতি হয়নি।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিজেপিকে উগ্রপন্থী সংগঠন বলে কটাক্ষ মমতার

রাজশাহী মহানগর শিবির সভাপতি গ্রেপ্তার

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাকপ্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণ

শ্বাসরুদ্ধকর অপেক্ষা

মা হলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

দক্ষিণাঞ্চলের ১৫ রুটে বাস চলাচল বন্ধ, যাত্রী দুর্ভোগ চরমে

আলোচিত-সমালোচিত সৌদি ক্রাউন প্রিন্স সালমান

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ১০০০০ মানুষের যোগব্যায়াম

নাটোরে পুলিশি বাধায় বিএনপি বিক্ষোভ মিছিল পণ্ড

এত্তো অর্থের মালিক জারদারি!

‘আমি কাপুরুষ নই’

জ্যোতিষী বিড়াল যার পক্ষে

বিশ্বকাপ ফুটবল: মেসির জন্য সাইকেল চালিয়ে কেরালা থেকে রাশিয়া?

রাশিয়ান যুবতীদের প্রতি তারকা ফুটবলারদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের আহ্বান

ঝিনাইদহে দুই বন্ধুর লাশ, সুইসাইডাল নোট

পিছু হটলেন ট্রাম্প