দুদককে রাতকানা বাদুর বললেন রিজভী

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ মার্চ ২০১৮, বুধবার, ১২:১০
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, দুদক হল রাতকানা বাদুরের মতো। সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা মন্ত্রিত্ব করছেন। তখন তার চোখ কানা হয়ে যায়। আজ বুধবার নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রিজভী আহমেদ বলেন, দুইজন মন্ত্রী সাজাপ্রাপ্ত। রাতকানা বাদুর এইজন্যই বলছি।
সারাদেশে সরকারি অর্থ লুট হচ্ছে। সোনালী ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক, পদ্মা সেতুতে লুট হচ্ছে। সেখানে দুদক কিছু দেখছেননা। অথচ বিএনপির বেলায় তারা রাতকানা বাদুরের মতো আচরণ করছেন। যে অন্ধ, যে কানা সে কখনো অপরের স্বচ্ছতা দেখতে পায় না। তিনি বলেন, দুদক দলীয় এজেন্ডা নিয়ে এখানে কাজ করছেন। যার চাকরি করছেন তার কথা শুনতে হচ্ছে। একদলীয় শাসনের নির্দয় রূপ আমরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে দেখতে পাচ্ছি। যারা একটু বিবেকবান তাদের বন্দুকের নল দিয়ে সরিয়ে দেয়া হয়। তাদের কোথাও স্থান নেই।  রিজভী আরো বলেন, খালেদা জিয়াকে যে প্রক্রিয়ায় আটকে রাখা হয়েছে তাতে মনে হচ্ছে তার কাছ থেকে একটা মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টায় আছে। তারা ভাবছে এভাবে করলে খালেদা জিয়া হয়তো এক পর্যায় সব মেনে নেবেন। এক তরফা নির্বাচন ও খালেদা জিয়াকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার জন্যই এই নির্দয় ষড়যন্ত্র করছে। সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই, এদেশে যদি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় সে নির্বাচনে বিএনপি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় আসবে।

[আলিম/এফএম]

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রাখাইন উপদেষ্টা পরিষদের প্রভাবশালী সদস্যের পদত্যাগ

৩২ ধারা থেকে গুপ্তচরবৃত্তি বাতিলের ঘোষণা

৫০ বছর পরে সন্ধান মিলল যাত্রী ও বিমানের

রুশনারা ঢাকায়

বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবে ২০ জেলে নিখোঁজ

৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত

আইনজীবিকে কুপিয়ে হত্যা

হাইতি প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

দৌলতদিয়ায় আটকা ৪ শতাধিক যানবাহন

মেয়েকে বাঁচাতে বাবার চিঠি

বরিশালে কাউন্সিলর প্রার্থীকে তলব

না ফেরার দেশে রাজীব মীর

বাবার স্বপ্ন পূরণই আমার একমাত্র লক্ষ্য

চার কর্মীর মুক্তির দাবিতে পুলিশ কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে আরিফের অবস্থান

বিমানবন্দরে বিদেশী ওষুধসহ নারী আটক

নির্বাচনের জন্য এমাজউদ্দীনের ৪ শর্ত