ব্যালট পেপারে ভোটে রাজি বিজেপি, তবে...

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৯ মার্চ ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:২২
ইলেকট্রনিক ভোটযন্ত্রের (ইভিএম) বদলে আগামীদিনের সব নির্বাচন আগের মতো কাগজের ব্যালটে করার যে দাবি জানিয়েছে কংগ্রেস, তার প্রতিক্রিয়ায় ভারতীয় জনতা পার্টি জানিয়েছে সবক’টি বিরোধী রাজনৈতিক দল যদি রাজি থাকে, তা হলে বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসতে বিজেপির আপত্তি নেই। বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব বলেছেন, আমি কংগ্রেসকে এটা মনে করিয়ে দিতে চাই যে, সবক’টি রাজনৈতিক দল রাজি হয়েছিল বলেই পেপার ব্যালটের পদ্ধতি ছেড়ে ইলেকট্রনিক ভোটযন্ত্র (ইভিএম)-এর মাধ্যমে সারা দেশে ভোটগ্রহণ চালু হয়েছিল। এখন যদি প্রত্যেকটি দল মনে করে, ইভিএম ছেড়ে আবার পেপার ব্যালটের পুরনো পদ্ধতিতেই ফিরে যাওয়া উচিত, তা হলে আলোচনায় বসা যেতে পারে। সেখানে ঐকমত্য হলে আমরা বিষয়টি বিবেচনা করব। ইভিএম নিয়ে সাধরণ ভোটারের মধ্যে যে আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে তা দূর করতেই পুরনো ব্যালট পেপারে ফিরে যাওয়ার পক্ষে সওয়াল করেছে কংগ্রেস। নির্বাচন কমিশনের কাছে তারা এমন দাবি জানাতে চলেছে।
শনিবার কংগ্রেসের পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনে বলা হয়েছে, ইভিএমের ব্যাপক অপব্যবহার করা হচ্ছে, যাতে সম্ভাব্য জনমতের উল্টো ফল বেরোয়। এই আশঙ্কা দূর করতেই ব্যালটে ভোট ফের চালু করা দরকার। বেশ কিছুদিন ধরেই দেশটির বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে নির্বাচনে ইভিএমে কারসাজি করে রায় বদলের অভিযোগ করা হচ্ছে। অবশ্য নির্বাচন কমিশন সবসময় দাবি করেছে, ইভিএমে কারসাজি করা সম্ভব নয়। কংগ্রেসের মুখপাত্র টম ভাড্ডাকান বলেছেন, দেশবাসীর মধ্যে এই ধারনা প্রবল যে, ইভিএমে বিকৃতি ঘটিয়ে ফলাফল এদিক-ওদিক করা যায়। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মিডিয়ার রিপোর্টও এই আশঙ্কা সমর্থন করেছে। সুতরাং কংগ্রেসের ব্যালটপত্রে ভোটদানের প্রথা ফেরানোর দাবি নির্বাচন কমিশনের মানা উচিত। এ ব্যাপারে কংগ্রেসের অধিবেশনে যে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে তাতে বলা হয়েছে, নির্বাচন ব্যবস্থার প্রতি জনসাধারণের আস্থা ফেরানোর জন্য বিশ্বের বড় বড় গণতান্ত্রিক দেশগুলি ফের ব্যালটে ভোটগ্রহণ চালু করেছে। এবার ভারতেও তা হোক। এছাড়া বিজেপির ভারতজুড়ে একসঙ্গে লোকসভা ও বিধানসভা ভোট করানোর উদ্যোগকে ‘ভ্রান্ত পদক্ষেপ’, ‘সংবিধানের সঙ্গে বেমানান’ এবং ‘অবাস্তব’ বলে আখ্যায়িত করেছে কংগ্রেস।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

kazi

২০১৮-০৩-১৯ ০৩:১২:০৫

In Canada Evm machine were used in one or two election. Finding it faulty country totally abandoned this machine long time ago.

আপনার মতামত দিন

ধর্ষণকে পাপ বলে মনে করতেন না আসারাম বাপু

গাজীপুর জামায়াতের আমিরসহ ৪৫ জন আটক

দুই বছরের শিশুকে ধর্ষণ

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় তিন মাস ধরে বন্ধ ৭৫ কোটি টাকার দুটি প্রকল্পের নির্মাণ কাজ

পার্লামেন্টে অযোগ্য ঘোষিত পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

৭ দিন অবস্থান করলেও তারেক রহমানকে ফেরাতে পারবেন না প্রধানমন্ত্রী: মোশাররফ

চোপ! গণতন্ত্র চলছে

শামসুল ইসলামের জানাজা অনুষ্ঠিত

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী নির্বাচিত হলেন মাইক পম্পেও

দক্ষিণ কোরিয়ায় কিম জং উন

সাব-ইন্সপেক্টর শবনম: "সব পুলিশ এমন হলে বদলে যেত বাংলাদেশ"

‘এই প্রাপ্তিটা বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের’

লন্ডন মিশনে হামলার ঘটনায় তদন্ত কমিটি, ডেপুটি হাইকমিশনার প্রত্যাহার

সব দলের অংশগ্রহণে স্বচ্ছ নির্বাচন চায় ইইউ

রানা প্লাজা ধসের পর চাকরি হারিয়েছেন ৪ লাখ শ্রমিক

‘ভারত সফরে নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হয়নি’