মেহেদির রঙ শুকানোর আগেই নিভে গেল দু’টি প্রাণ

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৪ মার্চ ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫০
মিনহাজ ও আঁখিমণি দম্পতি। মাত্র ১৩ দিন আগে বিয়ের সানাই বেজেছিল তাদের। হাতের মেহেদির রঙ এখনো শুকোয়নি। বিয়ের আংটিও হাত থেকে খোলেনি। কিন্তু এরই মধ্যে প্রাণ প্রদীপ নিভে গেলো এই দম্পতির। গত ২৭শে ফেব্রুয়ারি গায়ে হলুদ এবং ৩রা মার্চ বিয়ে হয়েছিল মিনহাজ ও আঁখিমণির।
সোমবার দুপুরে হানিমুনের জন্য তারা নেপালের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। পরিবারের কাছ থেকে দোয়া চেয়ে বিদায়ও নেন। এরপরে ঢাকা শাহজালাল বিমানবন্দরের ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমানে উঠেন। নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরেও পৌঁছান। কিন্তু অবতরণের সময় বিধ্বস্ত হয় বিমানটি। বিমানের ভিতরেই দগ্ধ হয়ে নিহত হন এ নব দম্পতি। নিহত মিনহাজের খালাতো বোন তাশমিনা খালেদ জানান, মিনহাজের বাসা রাজধানীর মহাখালীতে। তার বাবা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসির উদ্দিন। জাঁকজমকপূর্ণ বিয়ের অনুষ্ঠানের পর পরিবারের উদ্যোগে তাদেরকে নেপালে হানিমুনে পাঠানো হয়েছিল।
তাশমিনা জানান, কাঠমান্ডুতে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর আঁখি ও মিনহাজের মোবাইল ফোন থেকেই দেশে তাদের মৃত্যুর খবর আসে। বর্তমানে কাঠমান্ডুর হাসপাতালের মর্গে এ নবদম্পতির লাশ রয়েছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

শিবির সন্দেহে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

তিন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

আত্মহত্যার আগে ফেসবুকে যা লিখেছেন ঢাবি শিক্ষার্থী মুশফিক

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায় তুরস্ক

শহীদুল আলম: আত্মমর্যাদা ও মানবাধিকারের স্বপক্ষে একক কন্ঠস্বর

বিয়েতে বাবার অসম্মতি, যুবকের আত্মহত্যা

জেদ্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি পরিবারের ৪ সদস্য নিহত

‘এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না’

চীন ও চট্টগ্রাম বন্দর নিয়ে বিজেপি নেতার পরিকল্পনা

বাজপেয়ী প্রয়াত

কোটা আন্দোলনের নেত্রী লুমা রিমান্ডে

তাদের উদ্দেশ্য কি?

ওয়ান ইলেভেনের ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি

সাইবার হামলার আশঙ্কায় সব ব্যাংকে সতর্কতা জারি

ঢাকার নিন্দা বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব

বাংলাদেশে বাকস্বাধীনতা ও প্রতিবাদের অধিকারের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন