ফয়সালের অপেক্ষায় পরিবার

এক্সক্লুসিভ

মরিয়ম চম্পা | ১৪ মার্চ ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:১৩
নেপালে বিমান ট্র্যাজেডির সঙ্গে মিশে গেছে সাংবাদিক ফয়সাল সরদারের নাম। ওই দিন সকাল সাড়ে ছয়টায় তার বড় বোন শিউলিকে বলেন, আপা আমি তিনদিনের জন্য ঢাকার বাইরে যাচ্ছি। এটাই ছিল পরিবারের সঙ্গে তার শেষ কথা। নেপালে ইউএস-বাংলার বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর পরিবার জানতে পারে ফয়সাল ওই বিমানে ছিল। তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। ফয়সাল বৈশাখী টেলিভিশনের রিপোর্টার ছিলেন। এ ব্যাপারে বৈশাখী টেলিভিশনের সিএনই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘ফয়সাল সরদারের আহত হওয়ার সংবাদ আমরা পেয়েছি। কিন্তু হাসপাতালে ভর্তি হওয়া আহতদের তালিকায় তার নাম নেই।
এখন তার ভাগ্যে কি ঘটেছে আমরা নিশ্চিত নই। ফয়সালের গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলায়। ফয়সালের পরিবারে তার তিন ভাই, তিন বোন ও মা-বাবা রয়েছেন। ফয়সালের মামা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বাহাদুর ব্যাপারী। তার আরেক মামা রাজিব মাঝি বলেন, ব্যক্তিগত ট্যুরেই নেপাল গিয়েছিলেন ফয়সাল। যদিও আমাদের নিশ্চিত করে বলে যায় নি। নেপাল যাওয়ার আগে সকাল সাড়ে ৬টায় তার বড় বোন শিউলিকে বলে গেছেন ‘আপা আমি তিন দিনের জন্য ঢাকার বাইরে যাচ্ছি’ এটাই ছিল তার সর্বশেষ কথা। শান্ত স্বভাবের ফয়সাল সবসময় চুপচাপ থাকতেই পছন্দ করতো। ব্যক্তিগতভাবে খুবই হাস্যোজ্জ্বল ছেলে ফয়সাল। রাজিব বলেন, সবার প্রয়োজনে যেমন নিজে এগিয়ে যেতো তার প্রয়োজনেও সবাইকে পাশে পেতো।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘নয়া পল্টনে সরকারের পরিকল্পিত হামলা’

গণভবন ঘিরে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ঢল

রোহিঙ্গাদের ওপর নৃশংসতা ক্ষমার অযোগ্য

হুইল চেয়ারে আদালতে খালেদা

তৃতীয় দিনেও বিএনপির মনোনয়নপত্র কিনতে উপচে পড়া ভিড়

পশ্চিমবঙ্গের নাম বাংলা করা নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রকের আপত্তি

সরকারী টাকায় আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচার বন্ধের দাবি বিএনপির

২৮ বছর বয়সেই ফোর্বস ম্যাগাজিনে নাম!

ট্রেন চলাচল বন্ধ

কক্সবাজারে উজ্জ্বীবিত বিএনপি

ডিসেম্বরে শুনানি শেষে চূড়ান্ত রায় শ্রীলঙ্কা সুপ্রিম কোর্টের

সব প্রার্থীকে সমান সুযোগ দিতে হবে

‘জীবন একটা পাঠশালা, বোঝার আগেই বন্ধ হয়ে যায়’

রাখাইন নিয়ে ভারত-চীন লড়াই

ময়মনসিংহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

শায়েস্তাগঞ্জে ইয়াবাসহ বিক্রেতা আটক