বিশ্ব নেতা এবং ঢাকাস্থ মিশনগুলোর শোক

অনলাইন

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ১৩ মার্চ ২০১৮, মঙ্গলবার, ৫:৪১
নেপালের কাঠমান্ডুতে বাংলাদেশি বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইউএস-বাংলার একটি বিমান দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় তাদের পরিবারের প্রতি বিশ্ব নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন মিশন শোক জানিয়েছে। আজ এক বিবৃতিতে ঢাকাস্থ ইউরোপিয় ইউনিয়ন এবং ওই জোটভূক্ত দেশগুলোর আবাসিক মিশনের প্রধানরা নিহতদের পরিবারের পাশাপাশি বাংলাদেশের সরকার এবং জনগণের প্রতি শোক প্রকাশ করেন। শোক প্রকাশকারী দূতরা হলেনÑ ইউরোপিয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি রেনজি তিরিংক, স্পেনের রাষ্ট্রদূত আলভারো ডি সালাস জিমিনেজ ডি আজকারেট, নেদারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত লিওনি কুয়েলিনায়ের, ইতালির রাষ্ট্রদূত মারিও পালমা, সুইডেনের রাষ্ট্রদূত চার্লট্টা স্লাইটার, ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত হেমনিতি উইনথার, ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেইক, জার্মানীর রাষ্ট্রদূত ড. থমাস হেইনরিস প্রিঞ্জ এবং ফান্সের রাষ্ট্রদূত মারি-এ্যানিক বারডিন।
যৌথ বিবৃতিতে তারা, এই দুর্ঘটনায় আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন। এদিকে এ দুর্ঘটনায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদামির পুতিন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পৃথক শোকবার্তা পাঠিয়েছেন। মস্কো থেকে পাঠানো ওই শোক বার্তায় দুর্ঘটনায় হতাহতদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়েছে। এর আগে সোমবার রাতে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বাংলাদেশের পররাষ্ট্র এএইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন। এ সময় সুষমা স্বরাজ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশের জনগণের প্রতি গভীর সমবেদনা ও সহানভূতি ব্যক্ত করেন।পাশাপাশি কাঠমান্ডুতে প্রয়োজনীয় সহায়তার আশ্বাস দেন এবং বাংলাদেশের জনগণের পাশে থেকে দুর্ঘটনায় আহতদের জন্য প্রার্থনা করেন।
এছাড়াও ঢাকাস্থ কানাডা দূতাবাস নেপালের কাঠমান্ডুর বিমান দুর্ঘটনায় আলাদা বিবৃতিতে শোক জানিয়েছে।
সিঙ্গাপুরে সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার রাত ৭টা ৫০ মিনিটে নেপালের প্রধানমন্ত্রী খাগা প্রসাদ শর্মা অলিকে টেলিফোন সেখানে সাহায্য পাঠানোর কথা বলেছেন। জবাবে শর্মা অলী জানিয়েছেন, তিনি দুর্ঘটনা কবলিত স্থান পরিদর্শন করেছেন এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এর আগে দুপুরে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া ইউএস বাংলা এয়ার এলাইনের ওই বিমানটি নেপালের ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরনের পূর্বে পাশের একটি খেলার মাঠে বিধস্ত হয়। এতে পাইলট, কো-পাইলট, ক্রুসহ ২৭ বাংলাদেশি মিলে মোট ৫১ জন নিহত হন। বিমানটিতে ৬৭ যাত্রীর মধ্যে বাংলাদেশি ৩২ জন, নেপালের ৩৩ জন এবং চীন ও মালদ্বীপের একজন করে যাত্রী ছিল। আর ক্রু ছিল ৪ জন।




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কেউ বলতে পারবে না কারো গলা টিপে ধরেছি, বাধা দিয়েছি

মেজর মান্নান স্বাধীনতাবিরোধী - মহিউদ্দিন আহমদ

কেন আমাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে না?

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের প্রাথমিক তদন্ত শুরু আইসিসি’র

ভারতের বড় জয়

নওয়াজ মুক্ত, সাজা স্থগিত

সামনে আফগানিস্তান, সূচি নিয়ে ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ

ঘণ্টায় দুজন ডেঙ্গু রোগী

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক গ্রেপ্তার

ড. কামালের সঙ্গে জোনায়েদ সাকির বৈঠক

খালেদার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি আসছে

মানবসেবার ব্রতই লোটে শেরিংকে তুলেছে এ পর্যায়ে

৫ দিনের রিমান্ডে হাবিব-উন নবী সোহেল

দেশে-বিদেশে শহিদুল আলমের মুক্তি দাবি

শুল্ক বাধা দূর হলে দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের বাণিজ্য দ্বিগুণ করা সম্ভব-বিশ্বব্যাংক

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের অস্ত্রের মহড়া