সৎপিতা না নরপিশাচ!

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:০৬
মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী এক সৎপিতার হাতে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১৫ বছর বয়সী এক বালিকা। এ নিয়ে অভিযোগ করার পর তাকে বাসা থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। এ সময় তার কাছে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন এক ব্যক্তি। তিনি ওই বালিকাকে নিয়ে হাজির হয়েছেন পুলিশ স্টেশনে। চায়না প্রেসকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে মালয়েশিয়ার অনরাইন স্টার। এতে বলা হয়েছে, কেপং মেট্রো প্রিমা এলাকায় ৩১ শে জানুয়ারি রাত নয়টার দিকে ঘটে এ ঘটনা।
ওই সময় নির্যাতিত বালিকা তার মাকে জানায়, টুকিটাকি কাজ করার সময় তার সৎপিতা রান্নাঘরে তার শরীরের স্পর্শকাতর অংশে হাত দেয়। এতে সে বাধা দিলে তার ওই সৎপিতা তার ওপর চড়াও হয়। তাকে নির্যাতন করতে থাকে। এ কথা শুনে ওই বালিকার মাও তার ওপর চড়াও হয়। এর তিনদিন পরে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পুলিশে অভিযোগ করায় এখন ঘটনার তদন্ত চলছে। এরপরই ওই বালিকার মা পাল্টে গেছেন। তিনি পুলিশের কাছে তার স্বামী সম্পর্কে অনেক তথ্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, তাদের ওই মেয়েটি যখন গোসল করতো তখন তার স্বামী সেখানে উঁকি দিতো। তাকে যৌন নির্যাতনের চেষ্টা করতো। ৮ই ফেব্রুয়ারি তামান মেলাওয়াত এলাকায় একটি এপার্টমেন্টে নিয়ে যায় মেয়েকে। সেখানে তার ওপর যৌন নির্যাতন চালায়। ওই বালিকা বলেছে, এ কারণে তার শরীরের উপরের অংশে প্রচন্ড ব্যথা।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন