‘আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়া ও গণতন্ত্রকে মুক্ত করা হবে’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, শুক্রবার, ৮:৩০ | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৩৩
ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও হারিয়ে যাওয়া গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ভেবেছিল খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করলেই বিএনপি ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে। কিন্তু তাদের সেই আশার গুড়ে বালি। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে বিএনপি এখন আরও ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী। শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন অব বাংলাদেশ মিলনায়তনে একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ফখরুল বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে ভিত্তিহীন মামলায় সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানোয় দল এখন অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমেই চেয়ারপারসনকে মুক্ত করা হবে। নেত্রীর নির্দেশে ধৈর্যের সঙ্গে আমরা পরিস্থিতি মোকাবিলা করে যাচ্ছি।
নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থেকে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মধ্যদিয়ে নেত্রীকে মুক্ত করতে হবে। কোনো ধরনের উস্কানির ফাঁদে পা দেয়া যাবে না। বিএনপির যেসব নেতা কারাগারের বাইরে আছে, তাদের একমাত্র দায়িত্ব নিজেদের ঐক্যবদ্ধ করে সমস্ত শক্তিকে সংগঠিত করে একুশের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অন্যায়ের বিরুদ্ধে আন্দোলন করা। সেই আন্দোলনের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র ও দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। বর্তমান সরকার বাংলাদেশের মানুষের ভোটের, স্বাধীনভাবে চলাফেরা করার, সুষ্ঠু সুন্দর জীবনযাপন করার অধিকার হরণ করেছে। দুঃখের বিষয় হচ্ছে, যে খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য সবচেয়ে বেশি আন্দোলন সংগ্রাম করেছেন এবং গণতন্ত্রকে মুক্ত করেছেন, আজকে তাকে পরিত্যাক্ত ও অন্ধকার কারাগারে নিক্ষেপ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে সারাদেশে নৌকার পক্ষে ভোট চাচ্ছেন। আর অন্যদিকে আমাদের নেত্রীকে অন্ধকার কারাগারে দিন পার করতে হচ্ছে। এটা কখনও গণতন্ত্র হতে পারে না। এটা কখনও সবার জন্য সমান মাঠ হতে পারে না। উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, আজ পরীক্ষার সময়। এরকম পরীক্ষা বোধ হয় এর আগে জাতিকে দিতে হয়নি। আজকে আমরা যে সংগ্রাম করছি, তা বিএনপি বা খালেদা জিয়ার জন্য নয়। এই সংগ্রাম দেশকে রক্ষা করার জন্য এবং দেশের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। দলের প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীর সঞ্চালনা ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, ড. অবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিল সদস্য জয়নুল আবেদিন ফারুক, মনিরুল হক চৌধুরী, গোলাম আকবর খন্দকার, হাবীবুর রহমান হাবীব, আতাউর রহমান ঢালিসহ বিএনপি ঢাকা মহানগর, যুবদল, মহিলা দল ও ছাত্রদলসহ দলের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতারা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

M.D. kalam

২০১৮-০২-২৩ ০৯:১২:৩৩

Very good

আপনার মতামত দিন

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে জাতীয় ঐক্যের পর্যালোচনা করেছে বিএনপি

ভারতের কাছে পাত্তাই পেল না পাকিস্তান

ঐক্যের কর্মসূচি পর্যবেক্ষণ করছে আওয়ামী লীগ

ইতিবাচক অগ্রগতি দেখছে বিএনপি

সুধীজনদের সঙ্গে বৈঠকে বসছে ঐক্যপ্রক্রিয়া

কাল্পনিক মামলার তদন্তে কমিশন চেয়ে হাইকোর্টে রিট

আফগানদের বিপক্ষে লড়াকু ব্যাটিং

ঐক্য ভাঙবে না আরো অনেকে যুক্ত হবে

গাজীপুরে শ্রমিক বিক্ষোভ অবরোধ, পুলিশের লাঠিচার্জ, টিয়ার শেল

বাবা ডেকেও রেহাই মেলেনি লুৎফার

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি ড. কামালের

আওয়ামী লীগের বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না

বাড়ছে হৃদরোগ, আক্রান্ত হচ্ছে যুবকরাও

দুই বন্দরে ঘুষ ছাড়া সেবা মেলে না

কথিত বাংলাদেশি অভিবাসীদের ‘উইপোকা’ বললেন অমিত শাহ

সংঘাত এড়াতে চট্টগ্রাম কলেজের নিয়ন্ত্রণ নিল পুলিশ