ত্রিভুজ প্রেম, দুই প্রেমিকার আত্মহত্যা

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪৭
প্রেমিক একজন। তাকে ভালোবাসে দুই বোন। এ নিয়ে মান-অভিমানে কীটনাশক পান করে জীবন দিয়েছে দু’বোন। বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের একদিন পরই গতকাল মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটেছে রংপুর মডার্ন মোড় এলাকার পূর্ব শেখপাড়ায়। দু’বোনের আত্মহত্যার ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে শোকের ছায়া নেমে আসে। এলাকাবাসী জানায়, মডার্ন এলাকার পূর্ব শেখপাড়ার  মঞ্জুর হোসেন লিটনের কন্যা লুৎফর নাহার লতা (১৪) নাজিরদিঘি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।
আলমগীর হোসেনের কন্যা সাদিয়া জান্নাত অর্নী (১৪) দর্শনা স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী। দুজন একে অপরের খালাতো বোন। তাদের সঙ্গে একই এলাকার আনসার আলীর পুত্র রংপুর মডেল কলেজের অনার্সের শিক্ষার্থী মেরাজুল ইসলামের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিষয়টি জানাজানি হলে লতা ও অর্নীর পরিবারের লোকজন সোমবার মেরাজুলকে মারধর করে। সেই সঙ্গে তারা তাদের দু’কন্যাকে মেলামেশা করতে নিষেধ করে। এতে অভিমান করে দুজনই প্রেমিক মেরাজুলের উদ্দেশে দুটি প্রেমপত্র লিখে মঙ্গলবার দু’তিন ঘণ্টার ব্যবধানে কীটনাশক পান করে। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের দুজনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় গতকাল সকালে তারা মারা যায়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ফারুক আহাম্মদ

২০১৮-০২-১৪ ১৯:১৬:৩৪

নিজের পিঠ নিজে চুলকাইতে হয়। শাসন করলো ছেলেকে আর মারা গেল মেয়েরা ব্যাপারটা কি চমতকার।

আপনার মতামত দিন

প্রস্তুতি নিন কার্যকর আন্দোলনের জন্য: নজরুল ইসলাম

অন্যরকম ভালবাসা

কঙ্গোয় নৌকাডুবিতে নিহত ৫০

মালয়েশিয়ার রাজনীতিতে মডেল হত্যা

কলাপাতায় মোড়ানো স্কুলছাত্রীর লাশ

ইরানি উড়োজাহাজ কোম্পানির ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

বাংলাদেশী বিনিয়োগকারীদের যৌথ উদ্যোগের সুবিধা দিতে ভারতের প্রতি হাসিনার আহ্বান

ঈদের আগে হত্যার ভয় দেখিয়ে রমরমা বাণিজ্য চলছে: রিজভী

৯ জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১১

নায়িকা ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত হারভে, ১০ লাখ ডলারে জামিন

‘আমি ও তৌসিফ নব দম্পতি’

নির্বাচনকে সামনে রেখে ঢাকাকে দিল্লির সমর্থন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

পুতিনের উপস্থিতিতে ট্রাম্পের সমালোচনায় মুখর জাপান ও ফ্রান্স

সাংস্কৃতিক কূটনীতি

প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন কমিশন

‘বন্দুকযুদ্ধ’ অব্যাহত নিহত আরো ১১