বাংলাদেশে ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত সরবরাহের কাজ পেয়েছে ভারতের এনটিপিসি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৪৬
বাংলাদেশে ১৫ বছরের জন্য ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত সরবরাহের কাজ পেয়েছে ভারতের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল থার্মাল পাওয়ার করপোরেশন লিমিটেড (এনটিসিপি)। এ বছর জুন মাস থেকেই ওই বিদ্যুত সরবরাহ শুরু হতে পারে। এনটিপিসি মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেছে। প্রাথমিক হিসাব অনুযায়ী, প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের শুল্ক পড়বে ৩.৪২ রুপি। এই চুক্তির মাধ্যমে প্রতি বছর ভারতের এনটিপিসি উপার্জন করবে ৯০০ কোটি রুপি রাজস্ব। বিবৃতিতে বলা হয়, এনটিপিসি বিদ্যুত ভাইপার নিগম লিমিটেড (এনভিভিএন) স্বল্প ও দীর্ঘ মেয়াদী দুটি ক্যাটেগরিতে বিদ্যুত সরবরাহ দেবে বাংলাদেশ বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ডকে।
বর্তমানে দুটি আলাদা গ্রিডের মাধ্যমে বাংলাদেশকে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুত দিচ্ছে ভারত। এর একটি গ্রিড পশ্চিমবঙ্গে। অন্যটি ত্রিপুরা। দু’দেশের সরকারের মধ্যে চুক্তির আওতায় এ বিদ্যুত দেয়া হচ্ছে বাংলাদেশকে। অন্যদিকে রামপালে ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুতকেন্দ্রের অংশীদার এনটিপিসি। তবে নতুন করে যে বিদ্যুত সরবরাহ করবে এনটিপিসি তা শুরু হচ্ছে এ বছরের জুনে। তবে তার আগে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে ৫০০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন সরাসরি সংযোগ স্থাপন করতে হবে। তবে যে বিদ্যুত আনা হচ্ছে তার দাম কত পড়বে সে বিষয়ে কোনো তথ্য জানা যায় নি। ভারতের আরও দুটি শীর্ষ স্থানীয় বিদ্যুত ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে পরাজিত করে বাংলাদেশে ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুত সরবরাহের কাজ পেল এনটিপিসি এনভিভিএন। তাদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারত থেকে ৫০০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন বিদ্যুত সরবরাহের জন্য দরপত্র আহ্বান করে বাংলাদেশ বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ড। ওই বিদ্যুত দুই ধাপে সরবরাহের কথা বলা হয়। স্বল্প মেয়াদটি হলো ২০১৮ সালের ১লা জুন থেকে ২০১৯ সালের ৩১ শে ডিসেম্বর পর্যন্ত। দীর্ঘমেয়াদটির সময়কাল হলো ২০২০ সালের ১লা জানুয়ারি থেকে ২০৩৩ সালের ৩১ শে মে। ২০১৮ সালের ১১ই জানুয়ারির মধ্যে দরপত্র জমা নেয়া হয়। এতে এনভিভিএন, আদানি, পিটিসি এবং সেমবকোর নামে মোট চারটি প্রতিষ্ঠান দরপাত্র দাখিল করে। ২০১৮ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারি দরপত্র খোলা হয়। উল্লেখ্য, বাংলাদেশে বিদ্যুত সরবরাহের জন্য দরপত্র বা কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে ভারতের রাষ্ট্রীয় বিদ্যুত বিষয়ক কোম্পানির এটা দ্বিতীয় ঘটনা। এর আগে ২০১৩ সালে পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিদ্যুত সরবরাহের জন্য কাজ পায় পাওয়ার ট্রেডিং করপোরেশন অব ইন্ডিয়া। গত বছর এপ্রিলে ভারত সফর করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় তাকে বিদ্যুত বিষয়ক নিরাপত্তার আশ্বাস দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এ আমার দেশের সম্মান

৭১.৯ ভাগ ভারতীয় মনে করেন মোদি ফের ক্ষমতায় আসবেন

গ্রেপ্তার ১৫৩ মাদক ব্যবসায়ী

২৩ দিনে নিহত ৮৪

বদির বেয়াই রেহাই পাননি, কেউ পাবে না

মাদক নির্মূলের নামে বিএনপি টার্গেটে

দল গোছাচ্ছে বিএনপি

বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ

চট্টগ্রামে অভিযানেও থেমে নেই মাদক পাচার ও বিক্রি

ফের আসছে চিকুনগুনিয়া

ঈদের আগেই স্বজনদের ফেরত চায় ওরা

দিল্লির পাশে থেকেছে ঢাকা মোদির কাছে প্রতিদান চান হাসিনা

খালেদা জিয়া ফ্যাসিবাদী সরকারের আক্রমণের শিকার: নোমান

গণপ্রহার থেকে মুসলিম যুবককে বাঁচিয়ে সকলের ‘হিরো’ এই শিখ পুলিশকর্মী

শেখ হাসিনার নেতাজি ভবন পরিদর্শন

চট্টগ্রামে অভিযানেও থেমে নেই মাদক পাচার ও বিক্রি