নেতানিয়াহুর দুর্নীতির যথেষ্ট তথ্যপ্রমাণ আছে: পুলিশ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৩৯
দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত হতে পারেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। দেশটির পুলিশ বলেছে, ঘুষ দুর্নীতির অভিযোগে তাকে অভিযুক্ত করার মতো যথেষ্ঠ তথ্যপ্রমাণ রয়েছে তাদের হাতে। দুটি মামলায় তাকে ঘুষ গ্রহণ, জালিয়াতি ও আস্থা ভঙ্গের অভিযোগ রয়েছে। তবে এ মামলার অগ্রগতি কি হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে এটর্নি জেনারেলের অফিস। ওদিকে ইসরাইলি টেলিভিশনকে নেতানিয়াহু বলেছেন, তার বিরুদ্ধে আনা হয়েছে ভিত্তিহীন অভিযোগ। এর তদন্তে কিছুই পাওয়া যাবে না এবং তিনি প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন থাকবেন।
উল্লেখ্য, বিরোধী প্রকাশনাকে চ্যালেঞ্জ দিতে নিজের ইতিবাচক কর্মকা-কে প্রকাশ করার জন্য ইসরাইলের ইয়েডিয়ট আহরোনট পত্রিকার প্রকাশককে আর্থিক সুবিধা দিয়েছিলেন। পুলিশ বলেছে, ওই পত্রিকার সম্পাদক আরনন মোজেসকেও এ অভিযোগে অভিযুক্ত করা উচিত। দ্বিতীয় অভিযোগটি হলো ২০০৯ সাল থেকে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। এ সময় তিনি হলিউড মুঘল আরনন মিলচ্যান ও অন্য সমর্থকদের কাছ থেকে কমপক্ষে ২ লাখ ৮৩ হাজার ডলার মূল্যের উপহার সামগ্রী পেয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে শ্যাম্পেন, সিগারেট। এসব উপঢৌকন দেয়া হয়েছে আরনন মিলচ্যানকে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ভিসা পাইয়ে দেয়ার বিনিময়ে। আরনন মিলচ্যান প্রযোজিত ছবির মধ্যে রয়েছে ‘ফাইট ক্লাব’ ‘গন গার্ল’ ‘ দ্য রিভেন্যান্ট’ প্রভৃতি। পুলিশ বলছে এই প্রযোজককেও ঘুষের অভিযোগে অভিযুক্ত করা উচিত। পুলিশ বলছে, আরনন মিলচ্যানকে সুবিধা দেয়ার জন্য নেতানিয়াহু একটি আইন সামনে ঠেলে দেন। তার নাম দেয়া হয় মিলচ্যান ল। এতে বিদেশে বসবাসকারী কোনো ইসরাইলি দেশে ফিরলে তাকে ১০ বছরের জন্য আয়কর থেকে মুক্তি দেয়া হয়। তবে এই প্রস্তাব আটকে দেয় অর্থ মন্ত্রণালয়। এ ছাড়া অস্ট্রেলিয়ার বিলিয়নিয়ার জেমস প্যাকার ঘটনায় নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে প্রতারণা ও বিশ্বাস ভঙের অভিযোগ আনা যেতে পারে। ডিসেম্বরে ইসরাইলের চ্যানেল ১০ কে জেমস প্যাকার বলেন, তিনি তদন্তকারীদের বলেছেন, তিনি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ও তার স্ত্রী সারাহকে উপহার দিয়েছেন। এ অবস্থায় ইসরাইলি মিডিয়া বলছে, এরই মধ্যে কমপক্ষে সাতবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে। তবে শেষ পর্যন্ত কি ঘটবে তা নির্ভর করছে এটর্নি জেনারেলের অফিস। তবে এ সিদ্ধান্ত নিতে কয়েক মাস সময় লাগতে পারে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

শিবির সন্দেহে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

তিন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

আত্মহত্যার আগে ফেসবুকে যা লিখেছেন ঢাবি শিক্ষার্থী মুশফিক

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায় তুরস্ক

শহীদুল আলম: আত্মমর্যাদা ও মানবাধিকারের স্বপক্ষে একক কন্ঠস্বর

বিয়েতে বাবার অসম্মতি, যুবকের আত্মহত্যা

জেদ্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি পরিবারের ৪ সদস্য নিহত

‘এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না’

চীন ও চট্টগ্রাম বন্দর নিয়ে বিজেপি নেতার পরিকল্পনা

বাজপেয়ী প্রয়াত

কোটা আন্দোলনের নেত্রী লুমা রিমান্ডে

তাদের উদ্দেশ্য কি?

ওয়ান ইলেভেনের ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি

সাইবার হামলার আশঙ্কায় সব ব্যাংকে সতর্কতা জারি

ঢাকার নিন্দা বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব

বাংলাদেশে বাকস্বাধীনতা ও প্রতিবাদের অধিকারের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন