‘যারা দুর্নীতি করবে তাদের বিচার হতেই হবে’

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, বুধবার, ১২:০৭ | সর্বশেষ আপডেট: ৬:৩৫
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমি এটুকু বলতে চাই, দুর্নীতি যারা করবে, সন্ত্রাস যারা করবে, জঙ্গিবাদের সাথে যারা জড়িত, তাদের বিচার হতেই হবে। কারণ বাংলাদেশটাকে একটা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে আমরা আনতে চাই। বাংলাদেশের উন্নয়ন আমরা চাই। বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য উন্নত হোক সেটাই আমরা চাই। সেটা সম্ভব যখন দেশে দুর্নীতি, জঙ্গিবাদ, স্বজনপ্রীতি আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারব। মঙ্গলবার ইতালির রোমে প্রবাসীদের আয়োজনে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।
এসময় প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, আজকে যে মামলায় খালেদা জিয়ার শাস্তি হয়েছে সে মামলা কে দিয়েছে? খালেদা জিয়ার প্রিয় ব্যক্তিত্ব। সেনাবাহিনীর ৯ জন জেনারেলকে ডিঙিয়ে মইন উদ্দিনকে সে সেনাপ্রধান করেছিলে। আর বিশ্ব ব্যাংকে চাকরি করত ফখরুদ্দীন সাহেব, তাকে নিয়ে এসে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর করেছিল। তাদের দলীয় লোক ইয়াজউদ্দীন সাহেবকে বানালো রাষ্ট্রপতি। ফখরুদ্দীন, মইন উদ্দিন, ইয়াজউদ্দীন তারাই তো তার বিরুদ্ধে মামলা দিল। এ মামলা তো আওয়ামী লীগ দেয়নি। রায়ের বিরোধীতাকারীদের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, আমার প্রশ্ন আজকে যারা বিএনপি দরদী, আমাদের আঁতেলরাও আছে তারা বলে দুই কোটি টাকার জন্য কেন এতো মামলা। তাহলে দুর্নীতি করার জন্য একটা সিলিং থাকবে যে এতো কোটি পর্যন্ত দুর্নীতি করা জায়েজ। তিনি বলেন, টাকাগুলো এসেছিলো এতিমদের জন্য। কোন এতিম এ টাকা পেয়েছেন। যদি খালেদা জিয়া বলতেন আমার দুই ছেলে এতিম। তার জন্য রেখেছি। কিন্তু তিনি সেটিও বলেননি। বিএনপির সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে নির্বাচন প্রতিরোধ ও সরকার পতনের নামে এই বিএনপি জ্বালাও পোড়াও ও অগ্নিসংযোগ শুরু করে। ২০১৩ সালে ঠিক একইভাবে তারা সন্ত্রাসী কর্মকা- শুরু করে দেয়। এই সময়ে সমানে তারা আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়েছে। প্রায় তিন হাজারের উপরে মানুষকে তারা আগুন দিয়ে ঝলসে দিয়েছে। ওই তিন বছরে প্রায় পাঁচশর কাছাকাছি মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে। পুলিশ, বিজিবি, সেনা সদস্যকে পুড়িয়ে মেরেছে। কত অন্যায় তারা করেছে চিন্তা করেন। সারা বাংলাদেশে এই ধরনের তা-ব তারা করেছে। বিচার বিভাগ স্বাধীন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের বিচার বিভাগ স্বাধীন। এখানে আমাকে গালি দেয়া বা সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করার কী যুক্তি থাকতে পারে আমরাতো সেটা বুঝি না। খালেদা জিয়া কালো টাকা সাদা করেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী হয়ে কালো টাকা সাদা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী যেমন করেছেন, তার দুই ছেলে কালো টাকা সাদা করেছেন। আসলো কোথা থেকে এই টাকা। দেশটাকে দুর্নীতির আখড়া করে দিয়েছিল তারা। বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমালোচনা করে সরকার প্রধান বলেন, জিয়াউর রহমান বহুদলীয় গণতন্ত্রের নামে যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতি করার সুযোগ করে দেয়। ব্যাংকে ঋণ খেলাফি সংস্কৃতি, দুর্নীতি ও লুটপাট করার সুযোগ করে দিয়ে একটা এলিট শ্রেণি তৈরি করে দিয়ে সে (জিয়া) তার ক্ষমতাটাকে কু্ক্িষগত করতে চেয়েছিল। এটাই জাতির জন্য দুর্ভাগ্য।
মুচলেকায় সই না দেয়ায় ২০০১ সালে ক্ষমতায় আসতে পারেন নি দাবি করে তিনি বলেন, ২০০১-এ আমরা ক্ষমতায় আসতে পারলাম না। ষড়যন্ত্র করে আসতে দেয় না। তার কারণ ছিল- গ্যাসের মালিক বাংলাদেশ, বিক্রি করবে আমেরিকা আর তা কিনবে ভারত। আমি এই মুচলেকায় সই দিই নাই, এই প্রস্তাবে রাজি হই নাই।

[এফএম]

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kazi Nurul Huq

২০১৮-০২-১৪ ১৭:৪১:০০

Honorable Pri Minister You are included.

আপনার মতামত দিন

শিবির সন্দেহে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

তিন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

আত্মহত্যার আগে ফেসবুকে যা লিখেছেন ঢাবি শিক্ষার্থী মুশফিক

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায় তুরস্ক

শহীদুল আলম: আত্মমর্যাদা ও মানবাধিকারের স্বপক্ষে একক কন্ঠস্বর

বিয়েতে বাবার অসম্মতি, যুবকের আত্মহত্যা

জেদ্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি পরিবারের ৪ সদস্য নিহত

‘এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না’

চীন ও চট্টগ্রাম বন্দর নিয়ে বিজেপি নেতার পরিকল্পনা

বাজপেয়ী প্রয়াত

কোটা আন্দোলনের নেত্রী লুমা রিমান্ডে

তাদের উদ্দেশ্য কি?

ওয়ান ইলেভেনের ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি

সাইবার হামলার আশঙ্কায় সব ব্যাংকে সতর্কতা জারি

ঢাকার নিন্দা বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব

বাংলাদেশে বাকস্বাধীনতা ও প্রতিবাদের অধিকারের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন