বাসন্তী রঙে রঙিন বসন্ত

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, মঙ্গলবার, ৬:৫৩
ছবি - নাসির উদ্দিন
বসন্ত বরণে সাজসাজ রব শহর জুড়ে। বাঙ্গালিয়ানার এই দিনে শাড়িতে মুখর ললনারা। খোপায় ফুল, মাথায় ফুলের মুকুট, বেলি ফুলের মালা, কাঁচের চুড়ি, কপালে রক্তিম লাল টিপে অপরূপ প্রকৃতিকে আপন করেছে তারা। পাঞ্জাবিতে রঙ্গিন ছেলেরা। ষড় ঋতুর দেশে কোমলতার প্রতীক ঋতু বসন্ত। ফাল্গুন মাসকে বরণ করতে নানান সাজে বর্ণিল রাজধানী ঢাকা।
ঋতুরাজ বসন্তে নতুন পাতায় সেজেছে গাছ। অপরূপ শোভায় মহিত করেছে নতুন ফুল, সঙ্গে ষোলকলাপূর্ণ পাখির গানে। সাজসাজ রবে রঙ্গিন, চলছে নাচ গান সহ নানান উৎসব। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণ, রবীন্দ্রসরোবর ইত্যাদিতে স্থানে চলছে বসন্ত বরণ অনুষ্ঠান। বিনোদন কেন্দ্রগুলো আড্ডায়, হাসি, গানে মুখর করে রেখেছে সংস্কৃতিমনারা। রাস্তার ধারে ধারে বসেছে অস্থায়ী ফুলের দোকান। আবার ললনাদের ভিড় করতে দেখা যায় কাঁেচর চুড়ির দোকানে। সবচেয়ে বেশি আকর্ষণ করছে বাহারি পিঠা পুলির দোকান। আজ প্রেমের দিন, আজ ভালোবাসার দিন, আজকের দিনটা একান্ত আপন বন্ধুতের। আধুনিক যুগের তারুণ্য দিনটিকে স্মৃতির মনিকোঠায় ধরে রাখতে মত্ত সেলফিবাজিতে। আবার অনেকে এসেছে পরিবার নিয়ে একান্ত কিছু সময় কাটাতে। ছোট শিশুটির হাত ধরে বাবা ধারণা দিচ্ছেন তার আদরের সন্তানকে বাঙ্গালিয়ানার। রঙে রঙিন দিনটিতে দেখা যায় অনেকে ফানুস উড়িয়ে জানাচ্ছেন শুভেচ্ছা বার্তা। কর্মব্যস্ত দিন হওয়ায় যতই বিকাল গড়িয়ে সন্ধ্যা হচ্ছে ততই আনাগোনা বাড়ছে লেক পাড়ে কিংবা একটু খোলা স্থানের খোঁজে। বেঁচে থাক বাঙ্গালীয়ানা, বেঁচে থাক তারুণ্যের জোয়ার।
[পিয়াস সরকার]


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

৪ মিনিটে মিশরের জালে আরো ২ গোল রাশিয়ার

প্রচারণায় কেন্দ্রীয় নেতারা উত্তেজনা বাড়ছে

গ্যালারিতে অন্য আকর্ষণ

উছিলা বিশ্বকাপ উদ্দেশ্য ভিন্ন

নারী নির্যাতন মামলায় কম সাজার নেপথ্যে

খালেদার চিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ কাল

বন্যার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান সুলতান মনসুরের

রোহিঙ্গা নেতাকে গলা কেটে হত্যা

বিশুদ্ধ পানি স্যানিটেশন ও খাদ্য সংকট চরমে

জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্ট ফান্ডে বরাদ্দযোগ্য অর্থ নেই

খুলনায় আর্জেন্টিনা সমর্থকদের ওপর হামলা, নোয়াখালীতে সংঘর্ষ

নোয়াখালীতে প্রবাসী খুন, ৬ মাসেও গ্রেপ্তার হয়নি আসামি

ফাঁকা ঢাকায় ছিনতাই আতঙ্ক

ওয়ান ইলেভেনের কুশীলবদের নিয়ে বিএনপি এবার সক্রিয়

সাগর-রুনি হত্যা রহস্য উদঘাটন কত দূর?

সাবেক ইসরাইলি মন্ত্রী ইরানের গুপ্তচর?