জেরুজালেম নিয়ে আর আলোচনা নয়: ট্রাম্প

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, মঙ্গলবার
জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দেয়ার পর এই বিষয়ে আর আলোচনার সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, আমি এটা পরিষ্কার করতে চেয়েছি যে, জেরুজালেম ইসরাইলের রাজধানী। সীমানা বিষয়ে দুই পক্ষ কোনো সমঝোতায় পৌঁছলে আমি তা সমর্থন করবো। রোববার ইসরাইলের পত্রিকা ইসরাইল হায়মকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা। ট্রাম্প বলেন, ফিলিস্তিন কখনোই আগের জেরুজালেম পাবে না।
আমরা এটি আলোচনার টেবিল থেকে সরিয়ে নিয়েছি। এই বিষয়ে আর আলোচনা করতে চাই না। গত মাসে সুইজারল্যান্ডের দাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামে বেনইয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে বৈঠকে একই মন্তব্য করেছিলেন ট্রাম্প। উল্লেখ্য, গত ৬ই ডিসেম্বর কয়েক দশকের মার্কিন বৈদেশিক নীতি লঙ্ঘন করে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তার এই ঘোষণায় বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এর তীব্র নিন্দা জানান। ট্রাম্পের জেরুজালেম ঘোষণার প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠে ফিলিস্তিনসহ বিভিন্ন দেশের মুসলিমরা। রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করে তারা। ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস মধ্য-প্রাচ্য শান্তি আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রকে আর মধ্যস্থতাকারী হিসেবে মেনে না নেয়ার ঘোষণা দেন। কিন্তু ট্রাম্প তার সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন। রোববারের সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সমঝোতার বিষয়ে বলেন, ইসরাইল ও ফিলিস্তিন কেউই শান্তি চুক্তি করার ক্ষেত্রে আপস করতে রাজি না। তবে এদিন ট্রাম্প ইসরাইলের অবৈধ বসতির বিষয়ে কথা বলেন। ফিলিস্তিনের সঙ্গে শান্তি আলোচনার বিষয়ে ইসরাইলের সদিচ্ছা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, ‘এই মুহূর্তে আমি বলতে চাই যে, ফিলিস্তিনিরা শান্তি চায় না। এবং ইসরাইল শান্তি চায়- আমি এই বিষয়েও পুরোপুরি নিশ্চিত না। বর্তমানে পূর্ব জেরুজালেমের ৮৬ শতাংশ সরাসরি ইসরাইলের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। দখলকৃত এসব অঞ্চলে বসতি স্থাপন করেছে ইসরাইল। প্রায় সাড়ে ৭ লাখ ইহুদি এখানে বসবাস করে। এই বিষয়ে ট্রাম্প ইসরাইলকে সতর্ক করে বলেন, বসতি স্থাপন এমন একটি বিষয় যা খুবই জটিল। সবসময়ই তা শান্তি প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে জটিলতার সৃষ্টি করে। তাই আমি মনে করি, বসতি স্থাপনের বিষয়ে ইসরাইলকে খুব সতর্ক হতে হবে। তবে বসতি স্থাপনের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র নিজের অবস্থান পরিবর্তন করেছে এই বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বিশ্লেষকরা। ‘আন্ডারস্ট্যান্ডিং দ্য প্যালেস্টাইন-ইসরাইলি কনফ্লিক্ট’ গ্রন্থের লেখক ফিলিস বেনিস বলেন, মধ্যস্থতাকারী হিসেবে এটাই যুক্তরাষ্ট্রের শেষ কথা নয়। কেননা দেশটি কখনোই একনিষ্ঠ মধ্যস্থতাকারী ছিল না। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এটা পরিষ্কার করেছেন যে, তিনি পূর্বের প্রেসিডেন্টদের তুলনায় আরো বেশি ইসরাইলপন্থি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এ আমার দেশের সম্মান

৭১.৯ ভাগ ভারতীয় মনে করেন মোদি ফের ক্ষমতায় আসবেন

গ্রেপ্তার ১৫৩ মাদক ব্যবসায়ী

২৩ দিনে নিহত ৮৪

বদির বেয়াই রেহাই পাননি, কেউ পাবে না

মাদক নির্মূলের নামে বিএনপি টার্গেটে

দল গোছাচ্ছে বিএনপি

বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ

চট্টগ্রামে অভিযানেও থেমে নেই মাদক পাচার ও বিক্রি

ফের আসছে চিকুনগুনিয়া

ঈদের আগেই স্বজনদের ফেরত চায় ওরা

দিল্লির পাশে থেকেছে ঢাকা মোদির কাছে প্রতিদান চান হাসিনা

খালেদা জিয়া ফ্যাসিবাদী সরকারের আক্রমণের শিকার: নোমান

গণপ্রহার থেকে মুসলিম যুবককে বাঁচিয়ে সকলের ‘হিরো’ এই শিখ পুলিশকর্মী

শেখ হাসিনার নেতাজি ভবন পরিদর্শন

চট্টগ্রামে অভিযানেও থেমে নেই মাদক পাচার ও বিক্রি