আমরণ অনশনে অসুস্থ ১৩৩ মাদরাসা শিক্ষক

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৯
টানা অবস্থান কর্মসূচির পর লাগাতার আমরণ অনশনের পঞ্চম দিনে ১৩৩ জন মাদরাসা শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সরকার স্বীকৃত স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা জাতীয়করণের দাবিতে বাংলাদেশ স্বতন্ত্র 
ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষক সমিতির ডাকে মঙ্গলবার থেকে এ অনশন চলছে।
গতকাল সংগঠনের সভাপতি কাজী রুহুল আমীন চৌধুরী বলেন, প্রচণ্ড শীতের সঙ্গে লড়াই করে দাবি আদায়ে শিক্ষকরা অনশন কর্মসূচিতে অবিচল রয়েছেন। অসহনীয় ঠাণ্ডায় অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। গুরুতর ৭ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি বলেন, দিনের পর দিন মাদরাসা শিক্ষকরা ফুটপাথে কনকনে শীতে বেতনের দাবিতে কর্মসূচি পালন করলেও এখন পর্যন্ত সরকারের তরফে কোনো সাড়া মেলেনি।
অনশনরত শিক্ষকরা জানান, প্রচণ্ড শীতের কারণে রাতে কেউ এক মুহূর্তের জন্যও ঘুমাতে পারে না। অনেকে ঠাণ্ডাজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন।
তাদের জরুরি চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করা হলেও সাড়া মেলেনি। শিক্ষক রফিকুল ইসলাম মানবজমিনকে বলেন, বিনা বেতনে চাকরি করে এরই মধ্যে পার হয়ে গেছে ৫৮ বছর। চাকরির মেয়াদ আছে আর মাত্র এক বছর। এবার দাবি আদায় না হলে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরবো।
এদিকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবিতে ষষ্ঠ দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষকরা। প্রেস ক্লাবের সামনে বেসরকারি শিক্ষা জাতীয়করণ লিয়াজোঁ ফোরামের ডাকে গত মঙ্গলবার থেকে এ কর্মসূচি চলছে। শনিবার লিয়াজোঁ ফোরামের উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম রনি বলেন, আগামীকাল পর্যন্ত আমরা অবস্থান কর্মসূচি চালাবো। এর মধ্যে সরকার দাবি মেনে না নিলে পরদিন থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। তিনি বলেন, বেতন বৈষম্যের কারণে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় বৈষম্য তৈরি হচ্ছে। এসব বৈষম্য দূরীকরণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ দাবি মেনে নেয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

kazi

২০১৮-০১-১৩ ২০:০৪:২০

বাংলাদেশের মানুষ ধর্মপ্রাণ । তাই বার্ষিক ওয়াজ মহফিল আয়োজন করে অনুদান সংগ্রহ করলে সবাই দান করবে। এতে বেতন দিতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। সাথে থাকবে সরকারী অনুদান । কেউ বিনা বেতনে কাজ করা সম্ভব নয়। সবার সংসার খরছ আছে।

আপনার মতামত দিন

ফেনীতে সাড়ে ১৩ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১

ছেলেকে হত্যার পর মায়ের স্বীকারোক্তি

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী নিখোঁজ

নাখালপাড়ায় নিহত এক ‘জঙ্গি’ কাজেম আলী স্কুলের ছাত্র

ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে কলেজছাত্র খুন

অর্থমন্ত্রীর গাড়ি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে পথচারীদের ওপর, আহত ৩০

রেকর্ড গড়া জয় বাংলাদেশের

নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ

জিয়াউর রহমানের সমাধিতে খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা

স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন গ্রেপ্তার

আইভীকে হাসপাতালে দেখে আসলেন ওবায়দুল

তিস্তা কূটনীতিতে চোখ ঢাকার

ভারতের পাশাপাশি মুসলিম দেশগুলোর অব্যাহত সমর্থন চেয়েছে বাংলাদেশ

শাহজালালে বৈদেশিক মুদ্রাসহ দুই যাত্রী আটক

ভারতের সুপ্রিম কোর্টে ফেলানী হত্যার রিট শুনানি ফের পেছালো

যশোরে বিএনপি নেতা অমিতের বক্তব্যে তোলপাড়