২০১৭ সালে দিল্লিতে অপরাধ বেড়েছে ১২ শতাংশ

দেশ বিদেশ

মানবজমিন ডেস্ক | ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, রোববার
ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে ২০১৭ সালে অপরাধের হার গত বছরের তুলনায় ১২ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এই বৃদ্ধির জন্য অর্থনৈতিক বৈষম্য, ভোগ, পরিবারের শিথিল নিয়ন্ত্রণকে দায়ী করেছে দিল্লি পুলিশ। তবে তুলনামূলকভাবে কমেছে ধর্ষণ ও খুনের ঘটনা। পুলিশের রেকর্ড অনুযায়ী, দিল্লিতে গাড়ি চুরি এখন সবচেয়ে বড় উদ্বেগের কারণ। ২০১৭ সালে দিল্লি পুলিশের খাতায় ২,২৩,০৭৫টি অপরাধ রেকর্ড করা হয়েছে। আগের বছর এই সংখ্যা ছিল ১,৯৯,১১০টি।
২০১৭ সালে ভারতে প্রতি লাখ জনসংখ্যার বিপরীতে অপরাধ রেকর্ড হয়েছে ১,২৬৩টি। ২০১৬ সালে এটি ছিল ১,১৩৭টি। পুলিশের দাবি, আগের চেয়ে মামলা দায়ের প্রক্রিয়া আরো সহজ হওয়া- এই বৃদ্ধির পেছনে অবদান রেখেছে। দিল্লি পুলিশ কমিশনার অমূল্য পাটনায়েক বলেন, আর্থসামাজিক বৈষম্য অপরাধ সংগঠনের একটি বড় কারণ। এর সঙ্গে অন্যান্য ইস্যুও রয়েছে। এ ছাড়া তরুণদের মধ্যে অসহিষ্ণুতা বেড়েছে। তার মতে, নারীদের নিরাপত্তা বিধান ও রাস্তায় অপরাধের আতঙ্ক দূর করার ওপর মনযোগ দিতে হবে। সারা বিশ্বেই অহরহ সন্ত্রাস হচ্ছে। আর, সন্ত্রাসদমন প্রচেষ্টাও রয়েছে তাদের তালিকার শীর্ষে।
পাটনায়েক জানান, গত বছর তাদের মনযোগ পাল্টা আঘাতের বদলে প্রতিরোধমূলক কৌশলের মধ্যে সীমিত ছিল। সক্রিয় সন্ত্রাসীদের চিহ্নিত করে তার ওপর কার্যকর নজরদারী করা, রাস্তায় পুলিশের উপস্থিতি বাড়ানো, ইত্যাদি। ফলে আগের বছরের তুলনায় গুরুতর অপরাধ ২৩.৪৩ শতাংশ কমেছে। এ বছর সড়ক ডাকাতি ও ছিনতাই ২১.০৫ শতাংশ কমেছে বলেও তিনি জানান।
(সূত্র: সাউথ এশিয়ান মনিটর)

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কারাবন্দি বাবাকে দেখে ফেরার পথে প্রাণ গেল ছেলের

আদালতের এজিপি ফেন্সিডিলসহ আটক

ফেনীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা খুন

বিএনপি নেতা কামরুল ঢালীর বিরদ্ধে দুদকে মামলা

সড়ক দুর্ঘটনায় ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত

পদ্মা সেতুর ৫৬ শতাংশ কাজ শেষ

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করলেন ইয়াং হি লি

আইভীর সিটিস্ক্যান ও এমআরআই সম্পন্ন, রাতে প্রেস ব্রিফিং

‘যথাসময়ে সহায়ক সরকারের রূপরেখা দেব’

পর্নো তারকা অলিভিয়ার মৃত্যু

বিরোধীদের নিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আলোচনা শুরু করছে পাকিস্তান সরকার

অধিভুক্তদের ঢাবির পরিচয়পত্র নয়

ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে সুপ্রিম কোর্ট

ময়মনসিংহে কলেজ ছাত্র নিহতের ঘটনায় মামলা

কাতার ২০২২ সালের বিশ্বকাপ আয়োজন করতে পারবে?

যুক্তরাষ্ট্রে অচলাবস্থার নেপথ্যে