ফেনী-বিলোনিয়া রেল চালু হচ্ছে

বাংলারজমিন

পরশুরাম (ফেনী) প্রতিনিধি | ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, রোববার
দীর্ঘ ২১ বছর বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ উদ্যোগে ফের চালু হচ্ছে ফেনী-বিলোনিয়া রেল যোগাযোগ। রেললাইন পুনঃস্থাপনের জন্য জরিপ (সমীক্ষা) কাজ শেষ হয়েছে। বহুল প্রতীক্ষিত এ রেল যোগাযোগ চালু হলে ভাগ্য খুলবে পরশুরাম-ফুলগাজীবাসীর। বিলোনিয়া হয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে মালামাল পরিবহন করে নিতে এ রেল চালুর উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ-ভারত সরকার।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ফেনী-বিলোনিয়া রেললাইন পুনঃস্থাপনের জন্য প্রাযুক্তিক অর্থনীতির সম্ভাব্য সমীক্ষার কাজ দেয়া হয়েছে ভারতের হায়দরাবাদের আরভে এসোসিয়েটস আর্কিটেক্টস ইঞ্জিনিয়ারিং কনসালটেন্টস কোম্পানিকে। বাংলাদেশ রেলওয়ের (পূর্বাঞ্চল) প্রধান প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ফেনী জেলা প্রশাসককে পরিত্যক্ত ফেনী-বিলোনিয়া রেললাইনের জন্য দু’লেন পুনঃস্থাপনে প্রাযুক্তিক অর্থনীতির সম্ভাব্য সমীক্ষায় সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতা করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।এর পরিপ্রেক্ষিতে জরিপ কার্যক্রম শেষ করেছে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।
এদিকে অন্য একটি সূত্র জানিয়েছে, ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের বিলোনিয়ায় রেল লাইন নির্মাণে সমীক্ষার কাজ শেষ করেছে ভারত।
আগরতলা স্টেশন থেকে বিলোনিয়া পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণে ৪০ একর ভূমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে।
জানা গেছে, ১৯৯৬ সালে লোকসানের অজুহাতে বন্ধ হয়ে যায় ফেনী-বিলোনিয়া রেল যোগাযোগ। ২১ বছর রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকায় ফেনী থেকে বিলোনিয়া পর্যন্ত ৮টি রেলস্টেশন ভেঙেচুরে ভুতুড়ে বাড়িতে পরিণত হয়েছে। লুট হয়ে গেছে এসব স্টেশনের আসবাবপত্র, দরজা-জানালা। ২৪ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের রেললাইনের অনেক জায়গায় রেলপাত, স্লিপার চুরি করে নিয়ে যাওয়ায় রেললাইনের অস্তিত্ব বিলীন হয়ে গেছে। রেললাইনের উভয় পাশে ২০ ফুট করে ৪০ ফুট জায়গা রেলওয়ের মালিকানাধীন রয়েছে। এসব ভূমি দীর্ঘদিন ধরে বেদখলে রয়েছে। রেললাইনের আশেপাশের শত শত একর জায়গা দখল করেছে প্রভাবশালী ও ভূমিদস্যুরা।
দুই লেন স্থাপনের জন্য ২৪ কিলোমিটার রেললাইনের উপর অবৈধ ঘরবাড়ি, দোকানপাটসহ নির্মাণাধীন অবকাঠামো চিহ্নিত করা হয়েছে। জরিপ প্রতিবেদনটি বাংলাদেশ রেলওয়ের (পূর্বাঞ্চল) বিভাগে পাঠানো হবে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের অনুমোদনের পর প্রশাসনের নির্দেশের মাধ্যমে এসব স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু হবে। এর পরই ফেনী-বিলোনিয়া রেললাইন নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু হবে।
বাংলাদেশ রেলওয়ের (পূর্বাঞ্চল) প্রধান প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান জানান, ফেনী-বিলোনিয়া রেললাইন পুনঃস্থাপনে সমীক্ষা রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন