গাজীপুরে যানজট নিরসনে ৩ শতাধিক ট্রাফিক সহযোগী নিয়োগ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর থেকে | ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, রোববার
বছরের পর বছর ধরে গাজীপুরের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহসড়কের টঙ্গী থেকে চান্দনা চৌরাস্তা পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার জুড়ে এবং ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চান্দনা থেকে কাালিয়াকৈর পর্যন্ত দীর্ঘ যানজট লেগেই আছে। সামনেই গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন। নির্বাচনের আগে যানজট নিরসনে ও ট্রাফিক ব্যবস্থাকে সুশৃঙ্খল করতে মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নগরের সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম ব্যক্তিগত উদ্যোগ ও অর্থায়নে নিয়েছেন বিশেষ উদ্যোগ। নিয়োগ দিয়ে মহাসড়কে নামিয়েছেন তিন শতাধিক ট্রাফিক সহযোগী।
জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশনের নিবার্হী কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম তিতুমির জানান, এরই মাঝে পেশাদারসহ তিন শতাধিক লোকবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। লোকবল নিয়োগ দিয়ে ও তাদের ট্রেনিং দিয়ে নির্ধারিত পোশাকসহ প্রথম ধাপে গত ১৬ই ডিসেম্বর, দ্বিতীয় ধাপে গত ৩১শে ডিসেম্বর তাদের সড়কে নামানো হয়েছে এবং পরবর্তী ধাপে বুধবার বাকিদের সড়কের যানজট নিয়ন্ত্রণ ও শৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত করা হয়। যার সুফল এরইমধ্যে পেতে শুরু করেছেন মহাসড়কের চলাচলকারীগণ।
মহাসড়কে ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি কাজ করতে তিনটি পদে ৩১১ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে চুক্তিভিত্তিক সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন পদমর্যাদার একজনকে পরিচালক নিয়োগ করা হয়েছে, যার মাসিক বেতন লক্ষাধিক টাকা। সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত লোকজনসহ দক্ষ ও অভিজ্ঞ ১০ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে সুপারভাইজার হিসেবে। এ ছাড়া ৩০০ জন ট্রাফিক পুলিশ সহকারী নিয়োগ করা হয়েছে যাদের প্রত্যেকের মাসিক বেতন ধরা হয়েছে ১০ হাজার টাকা। তাদের এই বেতনের অর্থ জাহাঙ্গীর আলমের নিজস্ব অর্থায়নে প্রতিষ্ঠিত সাহায্য সংস্থা জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে দেয়া হবে। গত ডিসেম্বর মাসে গাজীপুর মহানগরের দুটি মহাসড়কে এই জনবল নামানো হয়। এসব কর্মী ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি নগরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে দায়িত্ব পালন করবে। তাদের নিয়োগের লক্ষে স্থানীয় ক্যাবল চ্যানেল ও বিভিন্ন মাধ্যমে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। প্রায় দু’মাস আগে জনবল নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করে জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশন। এই উদ্যোগকে ইতিমধ্যে অনুমোদন দিয়েছে গাজীপুর পুলিশ বিভাগ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন