ব্রেইটবার্ট ছাড়লেন ব্যানন

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১১ জানুয়ারি ২০১৮, বৃহস্পতিবার
জুনিয়র ট্রাম্পকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার পর এবার নিজের কর্মস্থল ব্রেইটবার্ট নিউজ ছাড়লেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক প্রধান কৌঁসুলি স্টিভ ব্যানন। ২০১২ সাল থেকে তিনি এই প্রতিষ্ঠানের এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এ খবর দিয়েছে বিবিসি। খবরে বলা হয়, সম্প্রতি হোয়াইট হাউসের অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখা একটি বইয়ে ব্যাননের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, ২০১৬ সালের নির্বাচনের সময় রুশ প্রতিনিধিদের সঙ্গে ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বৈঠক হয়েছিল। আর এ বৈঠকের আয়োজন করেছিলো প্রেসিডেন্টপুত্র জুনিয়র ট্রাম্প। ব্যানন এই বৈঠককে ‘রাষ্ট্রদ্রোহমূলক’ আখ্যা দেন।
এর পরেই তার ওপর ক্ষেপে যান ট্রাম্প। হোয়াইট হাউসের চাকরি হারিয়ে ব্যাননের মাথা খারাপ হয়ে গেছে-এমন মন্তব্যও করেন ট্রাম্প। এই বিষয়ে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই ব্রেইটবার্ট ছাড়ার ঘোষণা দিলেন ব্যানন। নির্বাচনী প্রচারণার সময় থেকেই তিনি ছিলেন ট্রাম্পের বিশ্বস্ত সহযোগী ও পরামর্শদাতা। হোয়াইট হাউসে চাকরি নেয়ার আগে ব্রেইটবার্ট ছিল তার মূল কর্মস্থল। এখান থেকেই তিনি ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন। প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেয়ার পর তাকে হোয়াইট হাউসে চাকরি দেন ট্রাম্প। গত বছর ট্রাম্পের প্রধান কৌঁসুলির চাকরি হারানোর পর আবারো তিনি ব্রেইটবার্টেই ফিরে যান। পদত্যাগের ঘোষণায় ব্যানন বলেন,  ব্রেইবার্টের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি গর্বিত। অল্প সময়ের মধ্যেই এটি একটি বিশ্ব মানের সংবাদ প্রতিষ্ঠানে রূপ নিয়েছে। প্রতিক্রিয়ায় এক বিবৃতিতে ব্রেইবার্ট নিউজ জানিয়েছে, স্টিভ ব্যানন আমাদের ইতিহাসের মূল্যবান অংশীদার। তার অবদানের জন্য আমরা সবসময়ই কৃতজ্ঞ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন